অধ্যক্ষ ড. মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুর রহমানের ইন্তেকাল : আলেম সমাজের শোক

অধ্যক্ষ ড. মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুর রহমানের ইন্তেকাল : আলেম সমাজের শোক

পঞ্চগড় নুরুন আলা নূর কামিল মাদ্রাসার সাবেক অধ্যক্ষ, বিশিষ্ট আলেমে দ্বীন ড. মাওলানা মুহাম্মদ আব্দুর রহমানের ইন্তেকালে আলেম সমাজে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। শুক্রবার (১৯ এপ্রিল ২০২৪) ভোর ৪টায় রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তিনি দীর্ঘদিন যাবৎ ব্লাড ক্যান্সারে ভুগছিলেন। তিনি এক ছেলে, দুই মেয়ে ও স্ত্রী রেখে গেছেন।

তাঁর ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন দেশের বিশিষ্ট আলেমগণ, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসরবৃন্দ, ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই এসোসিয়েশন, বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন এবং বাংলাদেশ জমিয়তে তালাবায়ে আরাবিয়ার সাবেক ও বর্তমান নেতৃবৃন্দ।

অধ্যক্ষ ড. মাওলানা আব্দুর রহমান ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের দাওয়া এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের প্রথম ব্যাচের ছাত্র ছিলেন।

একই বিভাগের সাবেক সুযোগ্য ছাত্র এবং প্রফেসর, তার সহপাঠী বন্ধু মরহুম ড. মো. শহিদুল ইসলাম নুরীর তত্ত্বাবধানে এমফিল এবং পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন।

ছাত্রজীবনে তিনি বাংলাদেশ জমিয়তে তালাবায়ে আরাবিয়া, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি এবং কেন্দ্রীয় নেতা ছিলেন। এছাড়াও তিনি বাংলাদেশ জমিয়াতুল মোদার্রেছীন পঞ্চগড় জেলা শাখার সভাপতি ও কেন্দ্রীয় নেতা, ইসলামি ঐক্য আন্দোলনের নেতা এবং দারুল ইরফান দরবার শরীফের সালেক ছিলেন।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক, লেখক ও গবেষক ড. মাওলামা মুহাম্মদ ঈসা শাহেদী এক শোক বার্তায় লিখেন, অধ্যক্ষ ড. আবদুর রহমান ভাইয়ের ইন্তিকালের সংবাদে যারপর নাই মর্মাহত হয়েছি। দুনিয়া থেকে সবাইকে একদিন বিদায় নিতে হবে। কিন্তু কোনো কোনো আপনজনের বিদায় সহজভাবে মেনে নিতে মন চায় না। আমি তার রূহের মাগফিরাত কামনা করছি। তার শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি। তার মত একজন বিদগ্ধ আলেম পঞ্চগড়ের মাটি থেকে চলে গেলেন। আল্লাহ পাক তাকে জান্নাতুল ফেরদাউস নসীব করুন।

দারুল ইরফান দরবার শরীফ গাজীপুরের পীর ও মোদার্রেছীনের যুগ্ম-মহাসচিব অধ্যক্ষ ড. মাওলানা এ কে এম মাহবুবুর রহমান বলেন, মরহুম ড. আব্দুর রহমান ছিলেন নিবেদিত প্রান দ্বীনের খাদেম। দ্বীন কায়েমের আপোষহীন মুজাহিদ। কাদিয়ানীদের বিরুদ্ধে লড়াকু সৈনিক। হাজার হাজার আলেমের ওস্তাদ। তিনি ছিলেন আমার একান্ত ভক্ত। দারুল ইরফান দরবার শরীফ গাজীপুরের পক্ষ থেকে জানাচ্ছি গভীর শোক ও সমবেদনা।

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের থিওলজী এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ অনুষদের সাবেক ডিন প্রফেসর ড. আ ব ম সাইফুল ইসলাম সিদ্দিকী এক শোকবার্তায় লেখেন, মরহুম অধ্যক্ষ ড. আব্দুর রহমান জ্ঞানে-গুণে, আচার-ব্যবহারে অত্যন্ত অমায়িক এবং ভদ্র ছিলেন। তাঁর ইন্তেকালে আমরা গভীর শোক প্রকাশ করছি। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন মরহুমকে শাহাদাতের মর্যাদা দিয়ে জান্নাতুল ফেরদৌস নসিব করুন এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের ধৈর্যধারণ করার তৌফিক দান করুন।

একই অনুষদের সাবেক ডিন প্রফেসর ড. মো. আব্দুর রহমান আনওয়ারী বলেন, আমার দীর্ঘ দিনের সহপাঠী বন্ধু-মিতা ড. আব্দুর রহমান আল্লাহর ডাকে সাড়া দিয়ে আমাদের ছেড়ে পরপারে চলে গেলেন। তার সাথে আমার পরিচয় মাওলানা আব্দুর রহীম রহ এর দরসে ১৯৮৫ সালে জমিয়তে তালাবার প্রশিক্ষণ কর্মশালায়। আমরা দুজনে মিলে মাওলানা আব্দুর রহীম রহ এর পরামর্শ মোতাবেক দাওয়াহ বিভাগে ভর্তি হয়েছিলাম। তিনি ছিলেন খুবই মেধাবী। তার সাথে আমার অগণিত স্মৃতি রয়েছে। তার ওফাতে আমরা মর্মাহত। আমরা দীনের একজন মুখলেছ দাঈকে হারালাম।

ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই এসোসিয়েশনের সভাপতি ও সাবেক এমপি অধ্যক্ষ মো. শাহজাহান আলম সাজু এক শোক বার্তায় লিখেন, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ব্যাচর ছাত্র, আমাদের প্রিয় বন্ধু অধ্যক্ষ আব্দুর রহমানের মৃত্যুতে আমরা ইসলামিক ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই এসোসিয়েশন পরিবার গভীরভাবে শোকাহত। তাঁর বিদেহী আত্বার শান্তি ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি। অধ্যক্ষ রহমান অত্যন্ত সজ্জন, বিনয়ী ও অত্যন্ত ভালো মানুষ ছিলেন।

ইসলামী ঐক্য আন্দোলনের কেন্দ্রীয় জয়েন্ট সেক্রেটারি ও ভোলা লালমোহন গজারিয়া ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা রফিকুল ইসলাম খান বলেন, প্রিয় দ্বীনি ভাই এর ইন্তেকালে আমরা গভীরভাবে শোকাহত, আল্লাহ রাব্বুল আলামীন ভাইকে জান্নাতুল ফেরদাউস দান করুন, শোকসন্তপ্ত পরিবার ও আপনজনকে সবরে জামিল এখতিয়ার করার তৌফিক দান করুন, আমিন।

বাংলাদেশ জমিয়তে তালাবায়ে আরাবিয়ার কেন্দ্রীয় সভাপতি মাওলানা মুহাম্মদ জহিরুল ইসলাম বলেন, তাঁর ইন্তেকালে বাংলাদেশ জমিয়তে তালাবায়ে আরাবিয়ার কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ ও ইবি শাখার নেতৃবৃন্দ গভীরভাবে শোকাহত। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন মরহুমকে শাহাদাতের মর্যাদা দিয়ে জান্নাতুল ফেরদৌস নসিব করুন এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের ধৈর্যধারণ করার তৌফিক দান করুন।

মরহুমের রূহের মাগফিরাত কামনায় শুক্রবার (১৯ এপ্রিল ২০২৪) বাদ মাগরিব দারুল ইরফান দরবার শরীফে বিশেষ দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *