আরিফুলের দুর্দান্ত সেঞ্চুরি, যুক্তরাষ্ট্রকে ২৯১ রানের টার্গেট বাংলাদেশের

আরিফুলের দুর্দান্ত সেঞ্চুরি, যুক্তরাষ্ট্রকে ২৯১ রানের টার্গেট বাংলাদেশের

দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিত যুব বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচেই ভারতের বিপক্ষে হারে বাংলাদেশ। অনুর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে শিরোপার অন্যতম দাবিদার হয়ে যাওয়া বাংলাদেশ প্রথম ম্যাচে হারের পর যেন নিজেদের আসল রূপে ফিরে আসে। গ্রুপ পর্বের দ্বিতীয় ম্যাচে আয়ারল্যান্ডকে ৬ উইকেটে হারানোর পর আজ শেষ ম্যাচে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে রান পাহাড় গড়েছে মাহফুজুর রহমান রাব্বির দল। ব্লুমফন্টেইনে আগে ব্যাট করতে নেমে আরিফুল ইসলামের দাপুটে সেঞ্চুরিতে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ২৯১ রান করেছে বাংলাদেশ।

বিশ্বকাপে সুপার সিক্সে যেতে হলে বাংলাদেশের আজকের ম্যাচটি ছিল গুরুত্বপূর্ণ। প্রথম দুই ম্যাচে এক হার এক জয়ে বাংলাদেশ ছিল দ্বিতীয় অবস্থানে। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্রের আজকের ম্যাচের পরও আরও একটি ম্যাচ আছে। কাগজে-কলমে তো অন্তত সমীকরণটা বাংলাদেশের জন্য কিছুটা জটিল ছিলই।

দুই দলের জন্যই সমান গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচটিতে শুরুতেই টস ভাগ্য যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষে। টস জিতে আগে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেন যুক্তরাষ্ট্রের অধিনায়ক রিসি রামেস।

ব্যাট করতে নেমে ভাল শুরু ইঙ্গিত দেন বাংলাদেশের দুই ওপেনার আশিকুর রহমান শিবলি ও আদিল বিন সিদ্দিক। কিন্তু পাওয়ার প্লে-র শেষ দিকে আরিয়া গার্গের শিকার হন আদিল (১৩)। ব্যাটিং পাওয়ার প্লে-র প্রথম দশ ওভারে ১ উইকেট হারিয়ে ৩৮ রান তোলে বাংলাদেশ।

দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে ওপেনার শিবলিকে সঙ্গে নিয়ে রানের গতি বাড়াতে থাকেন মোহাম্মদ রিজওয়ান চৌধুরী। তবে দলীয় ৬৭ রানে ১৬তম ওভারে সাজঘরে ফেরেন শিবলি। ব্যক্তিগত ২৭ রানে নাদকারনির শিকার হন তিনি।

এরপর তৃতীয় উইকেট জুটিতে রিজওয়ানের সঙ্গী হন আরিফুল ইসলাম। দলীয় শতক পূরণের আগেই প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন রিজওয়ান (৩৫)। চতুর্থ উইকেট জুটিতে আহরার আমিনকে সঙ্গে নিয়ে দলের হাল ধরেন নিজের দ্বিতীয় যুব বিশ্বকাপ খেলা আরিফুল। যুক্তরাষ্ট্রের বোলারদের উপর চড়াও হন এই ডানহাতি ব্যাটার।

চতুর্থ উইকেটে ১২২ রানের বিশাল জুটি গড়ে দলের বড় রানের ভিত গড়ে দেন আরিফুল-আহরার। ব্যক্তিগত ৪৪ রান করে দলীয় ২১৬ রানে সাজঘরে ফেরেন আহরার। তবে এক প্রান্তে দাঁড়িয়ে থেকে যুব বিশ্বকাপে নিজের তৃতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেন আরিফুল।

এর আগে ২০২২ যুব বিশ্বকাপে পাকিস্তান ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে পঞ্চম ও সপ্তম স্থান নির্ধারণী ম্যাচে সেঞ্চুরি করেছিলেন আরিফুল। দুই বছর পর আবারও সেই সেঞ্চুরির স্মৃতি ফেরালেন তিনি।

৪৬ তম ওভারে আরিফুল ১০৩ রান করে বিদায় নেন। শেষ দিকে শিহাব জেমসের ১৭ বলে ৩১ রানের ক্যামিওতে নির্ধারিত ৭ উইকেট হারিয়ে ২৯১ রান করে বাংলাদেশ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *