ইউআইইউতে “বাংলাদেশ ব্যাংকিং সেক্টরের যাত্রা” শীর্ষক লেকচার অনুষ্ঠিত

ইউআইইউতে “বাংলাদেশ ব্যাংকিং সেক্টরের যাত্রা” শীর্ষক লেকচার অনুষ্ঠিত

ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির (ইউআইইউ) স্কুল অব বিজনেস অ্যান্ড ইকোনমিক্সের উদ্যোগে ‘বাংলাদেশ কর্পাস: পাবলিক লেকচার সিরিজ-২০২৪’ এর অংশ হিসেবে “বাংলাদেশ ব্যাংকিং সেক্টরের যাত্রা” শীর্ষক প্রবন্ধ উপস্থাপন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার (৮ মে) বিকাল তিনটায় ইউআইইউ ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ও ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. সালেহউদ্দিন আহমেদ। এসময় উপস্থিত ছিলেন ইউনাইটেড গ্রুপের চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব মঈনুদ্দিন হাসান রশীদ। সভাপতিত্ব করেন ইউআইইউ’র স্কুল অফ বিজনেস অ্যান্ড ইকোনমিক্সের ডিন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ মুসা এবং ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ইউআইইউ’র মিডিয়া স্টাডিজ অ্যান্ড জার্নালিজম বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মারিও হিরস্টেইন।

ড. সালেহউদ্দিন আহমেদ বলেন যে কোন দেশের অর্থনৈতিক ও শিল্পের উন্নয়ন ঐ দেশের ব্যাকিং সেক্টরের উপর নির্ভর করে। তিনি বাংলাদেশে ব্যাংকিং খাত শুরুর বিভিন্ন দিক বিস্তারিত তুলে ধরেন। এছাড়াও তিনি বলেন দেশের ব্যাংকিং খাতকে রক্ষা করতে হলে শুধু বাংলাদেশ ব্যাংক একা কাজ করে পারবে না। সেজন্য বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন এবং আর্থিক খাতের অন্যান্য সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোকে একসাথে কাজ করতে হবে।

তিনি আরও বলেন রাষ্ট্রয়াত্ত ব্যাংকগুলো বছরের পর বছর লোকসান গুনছে,দিতে পারছে না কাঙক্ষিত গ্রাহক সেবা এবং বেড়ে চলছে খেলাপি ঋণের পরিমান। অন্যদিকে, কিছু ব্যাংক উন্নত ব্যাংকিং কাঠামো অনুসরণ করতে চাইলেও বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কিছু অনভিজ্ঞ এবং রাজনৈতিকভাবে প্রভাবিত নীতিনির্ধারকদের জন্য তা বাস্তবায়িত হচ্ছে না। যার ফলে ক্ষমতাবান রাজনৈতিক এবং অপরাধীরা দুর্নীতি ও অর্থ-পাচারের মত কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবেই পরিচালনা করছে আর অন্যদিকে সাধারণ জনগণ ও বিদেশে অধ্যায়নরত শিক্ষার্থীদের জন্য আন্তর্জাতিক লেনদেন এবং গ্রাহক সেবা বিঘ্নিত হচ্ছে। এ খাতে আগে স্বচ্ছতা এবং জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে। ব্যাংক খাতকে বাঁচাতে হলে স্বাধীন পরিচালক এবং দক্ষ ব্যক্তিদের কাজের সুযোগ দিতে হবে।

উক্ত অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের প্রধান, শিক্ষক, কর্মকর্তা, শিক্ষার্থী এবং আমন্ত্রিত অথিতিরা উপস্থিত ছিলেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *