ইউআইইউতে “মধ্যম আয়ের স্বপ্নকে গণতন্ত্রীকরণের চ্যালেঞ্জ” শীর্ষক লেকচার অনুষ্ঠিত

ইউআইইউতে “মধ্যম আয়ের স্বপ্নকে গণতন্ত্রীকরণের চ্যালেঞ্জ” শীর্ষক লেকচার অনুষ্ঠিত

ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির (ইউআইইউ) স্কুল অব বিজনেস অ্যান্ড ইকোনমিক্সের উদ্যোগে ‘বাংলাদেশ কর্পাস: পাবলিক লেকচার সিরিজ-২০২৪’ এর অংশ হিসেবে “মধ্যম আয়ের স্বপ্নকে গণতন্ত্রীকরণের চ্যালেঞ্জ” শীর্ষক প্রবন্ধ উপস্থাপন হয়েছে। আজ রবিবার (১২ মে ২০২৪) বিকাল ৩ টায় ইউআইইউ ক্যাম্পাসে অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন পাওয়ার অ্যান্ড পার্টিসিপেশন রিসার্চ সেন্টারের (পিপিআরসি) এক্সিকিউটিভ চেয়ারম্যান এবং বাংলাদেশ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ড. হোসেন জিল্লুর রহমান। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইউআইইউ বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান এবং ইউনাইটেড গ্রুপের প্রধান উপদেষ্টা জনাব হাসান মাহমুদ রাজা। এসময় উপস্থিত ছিলেন ইউআইইউ’র উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ আবুল কাশেম মিয়া ইউআইইউ’র স্কুল অফ বিজনেস অ্যান্ড ইকোনমিক্সের ডিন প্রফেসর ড. মোহাম্মদ মুসা। অনুষ্ঠানে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ইউআইইউ’র অর্থনীতি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. ওয়াহিদা ইয়াসমিন।

ড. হোসেন জিল্লুর রহমান বলেন, শিক্ষায় আমাদের অংশগ্রহণ বেড়েছে কিন্তু গুণগত মান বাড়েনি। এখন দেশে শিক্ষা পাওয়া সহজ হয়েছে। কিন্তু এখানে আমলাতান্ত্রিক জটিলতা বেড়েছে এবং পাশাপাশি মান নিচের দিকে যাচ্ছে। এটি বন্ধ হওয়া উচিৎ এবং শিক্ষার মান বাড়ানো উচিৎ।

সম্পদ ছাড়া রূপান্তর, অনিশ্চয়তার সাথে স্থিতিশীলতা আমাদের একটি ধাঁধার মধ্যে ফেলেছে জানিয়ে এই শিক্ষাবিদ বলেন, অর্থনৈতিক চলমান শাসনে চলা বর্তমান মডেল ‘সস্তা শ্রম অর্থনীতি’কে স্থায়ী করবে, মানসম্পন্ন মানবিক পুঁজি এবং সামাজিক অবকাঠামোতে প্রয়োজনীয় বিনিয়োগ না করে, জনসংখ্যাগত লভ্যাংশের সংক্ষিপ্ত সুযোগ অতিক্রম এবং আর্থিক বৈষম্য সামাজিক গতিশীলতা এবং মধ্যবিত্তের স্থায়িত্বকে সংকটে ফেলবে। চলমান এ সংকটের সমাধান হিসেবে তাঁর পরামর্শ সম্মিলিতভাবে অন্তর্ভুক্তির সুযোগ-অর্থনৈতিক, সামাজিক ও রাজনৈতিক সম্ভাবনা দিতে পারে। সেজন্য সবাইকে একসাথে সংকট মোকাবেলায় কাজ করতে হবে। একইসাথে সামাজিক, রাজনৈতিক এবং অর্থনৈতিক সমর্থন পেলেই বাংলাদেশ মধ্যম আয়ের স্বপ্ন পূরণ করতে পারবে। আমাদের সামনের দিনগুলোর জন্য আরও বেশি স্বপ্ন দেখতে হবে।

উক্ত অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের প্রধান, শিক্ষক, কর্মকর্তা, শিক্ষার্থী এবং আমন্ত্রিত অথিতিরা উপস্থিত ছিলেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *