এশিয়ান ইউনিভার্সিটির ২৮তম প্রতিষ্ঠাবাষিকী উদযাপন

এশিয়ান ইউনিভার্সিটির ২৮তম প্রতিষ্ঠাবাষিকী উদযাপন

বাংলাদেশের স্বনামধন্য বেসরকারী উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের গৌরবের ২৮তম প্রতিষ্ঠাবাষিকী উপলক্ষে মাসব্যপী বর্ণাঢ্য আয়োজনের উদ্বোধন করা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের আশুলিয়াস্থ স্থায়ী ক্যাম্পাসে আয়োজিত অনুষ্ঠানে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন এইউবি প্রতিষ্ঠাতা প্রফেসর ড. আবুল হাসান মুহাম্মদ সাদেক।

.

“স্বল্প খরচে মানসম্মত উচ্চশিক্ষা” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে আয়োজিত কর্মসূচীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতীয় পতাকা ও বিশ্ববিদ্যালয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। শান্তির প্রতীক কবুতর ও বেলুনদ উড়ানোর মধ্য দিয়ে মাসব্যাপী কর্মসূচির উদ্বোধন করেন এইউবি প্রতিষ্ঠাতা প্রফেসর ড. আবুল হাসান মুহাম্মদ সাদেক। এরপর বিশ্ববিদ্যালয় চত্বর থেকে শুরু হয় বর্ণাঢ্য র‌্যালী, ক্যাম্পাসের চারপাশে র‌্যালী ঘুরে এসে আবার ক্যাম্পাসে শেষ হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন এইউবি বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান ড. মুহাম্মাদ জাফার সাদেক। এইউবি এর উপাচার্য ইমেরিটাস প্রফেসর ড. শাহজাহান খান, এইউবি বোর্ড অব ট্রাস্টিজের মেম্বার সেক্রেটারী মিসেস সালেহা সাদেক, এইউবি ট্রেজারার প্রফেসর ড. মো: নূরুল ইসলাম, সিন্ডিকেট সদস‍্য এস এম ইয়াছিন আলীসহ অন্যান্য সদস্যবৃন্দ। এছাড়াও এইউবি’র বিভিন্ন অনুষদের ডীন, বিভাগীয় প্রধান, ফ্যাকাল্টিবৃন্দ, গর্বিত এলামনাই, আমন্ত্রিত অতিথি, ছাত্রছাত্রী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

আলোচনা সভায় উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন এইউবি রেজিস্ট্রার একেএম এনামুল হক।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি’র বক্তৃতায় এইউবি প্রতিষ্ঠাতা প্রফেসর ড. আবুল হাসান মুহাম্মদ সাদেক বলেন, ১৯৯৬ সালে দেশমাতৃকার প্রয়োজনে গ্রাম, নগর, শহর আর প্রান্তিক পর্যায়ে উচ্চশিক্ষা পৌছে দিতে এবং দক্ষ, যোগ্য ও নৈতিকতা সম্পন্ন মানবসম্পদ গড়ে তোলার লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠিত হয় এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ। বাংলাদেশকে একটি উন্নত ও সমৃদ্ধশালী সোনার বাংলা গড়ে তুলতেই এই প্রতিষ্ঠানের যাত্রা শুরু। গত ২৭ বছরে এইউবি তার কাজটি এগিয়ে নিতে যাদের সহযোগিতা পেয়েছে তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা। বঙ্গবন্ধু কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্মার্ট বাংলাদেশ গঠনের একান্ত সহযাত্রী এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ।

এইউবি বোর্ড অব ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান ড. মুহাম্মাদ জাফার সাদেক বলেন, সারাবিশ্বের সাথে তাল মিলিয়ে বিশ্বমানের সিলেবাস ও কারিকুলাম দিয়ে এইউবি তার শিক্ষাকার্যক্রম পরিচালনা করছে। আগামীতে আমরা বিশ্বর‌্যাংকিং এ স্থান করে নেয়ার সর্বাত্বক প্রস্ততি গ্রহণ করেছি।

আলোচনা সভায় সভাপতি’র বক্তৃতায় এইউবি উপাচার্য ইমেরিটাস প্রফেসর ড. শাহজাহান খান বলেন “স্বল্প খরচে মানসম্মত উচ্চশিক্ষা” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখেই ২০২৪ সালে আমাদের সার্বিক শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হবে। মানসম্মত শিক্ষার বিকল্প নেই। সৎ, যোগ্য ও দক্ষ জনশক্তি তৈরীতে এশিয়ান ইউনিভার্সিটি বদ্ধ পরিকর। বাংলাদেশ তথা সারাবিশ্বকে এগিয়ে নিতে আমরা আমাদের মানবসম্পদ গড়ার কার্যক্রমটি চালিয়ে যাচ্ছি। আমি বাংলাদেশ সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞ, আমাকে এই সুযোগটি দেয়ার জন্য।

এইউবি ট্রেজারার প্রফেসর ড. মো: নূরুল ইসলাম বলেন, আমরা শিক্ষার্থীদের শিক্ষাব্যয় কমিয়ে আনতে সর্বক্ষেত্রে ২৫ ভাগ ছাড়ের ব্যবস্থা করেছি। এছাড়াও মেধাবীরা পাচ্ছে শতভাগ ছাড়। মুক্তিযোদ্ধার সন্তানরা পাচ্ছে সম্পূর্ণ বিনাখরচে পড়ার সুযোগ।

আলোচনা সভার পর ২৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে ২৮ পাউন্ড কেক কাটা হয়। এরপর টেলিভিশন মিডিয়া, প্রিন্ট মিডিয়া, কবি সাহিত্যিক, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব এবং এইউবি সম্মানিত ট্রাস্টিবোর্ড ও সিন্ডিকেট সদস্যবৃন্দ, বিভিন্ন অনুষদের ডীন, বিভাগীয় প্রধান, কর্মকর্তা-কর্মচারীর ফুলেল শুভেচ্ছায় সিক্ত হন এইউবি প্রতিষ্ঠাতা প্রফেসর ড. আবুল হাসান মুহাম্মদ সাদেক।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান মুক্তাশা দীনা চৌধুরী ও ইংরেজী বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মিজানুর রহমান ভূঁইয়া।

২৮তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ২০২৪ উপলক্ষ্যে মাসব্যাপী বর্ণাঢ্য আয়োজনে রয়েছে রোবটিক্স কম্পিটিশন, কুইজ কম্পিটিশন, ক্রিকেট টুর্নামেন্ট, সেমিনার, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, ফুড ফেস্টিভ্যাল, ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও ফ্যামিলী ডে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *