কিরগিস্থানের বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষ্ঠানে ড্যাফোডিলের চেয়ারম্যান প্রধান অতিথি

কিরগিস্থানের বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষ্ঠানে ড্যাফোডিলের চেয়ারম্যান প্রধান অতিথি

ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির (ডিআইইউ) বোর্ড অফ ট্রাস্টিজের চেয়ারম্যান ড. মোঃ সবুর খান কিরগিস্থানের আলা-তু ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি আয়োজিত আন্তর্জাতিক স্টুডেন্ট স্টার্টআপ ইভেন্ট, “আলা-টু হাব ব্যাটেল” এ প্রধান অতিথি হিসাবে যোগদান করেন এবং বিজয়ীদেও মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন। ১৭ মে কিরগিস্তানের আলা-তু ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে এই যুগান্তকারী প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রতিযোগিতায় ৫০ জনের বেশি শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে এবং ১৬ টি দল তাদের উদ্ভাবনী স্টার্টআপ ধারণাগুলিকে উপস্থাপন করে। প্রতিযোগিতায় তিনটি দল চ্যাম্পিয়ন, প্রথম রানার আপ ও দ্বিতীয় রানার আপ হওয়ার গৌারব অর্জন করে । ড. মোঃ সবুর কানের খানের উপস্থিতি, তার মূল্যবান অন্তর্দৃষ্টিমূলক বক্তৃতা অংশগ্রহণকারীদের অভিজ্ঞতাকে উল্লেখযোগ্যভাবে সমৃদ্ধ করার পাশাপাশি তরুণ উদ্যোক্তাদের গভীরভাবে অনুপ্রাণিত করেছে এবং ইভেন্টের সামগ্রিক প্রভাবকে উন্নত করেছে।

অনুষ্ঠানে স্টার্টআপ ইকোসিস্টেমের একজন আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞ হিসেবে ড. সবুর খান অংশগহনকারী উদীয়মান উদ্যোক্তাদের সমালোচনামূলক ও গঠনমূলক দিকনির্দেশনা প্রদান করে তার বিস্তৃত দক্ষতা শেয়ার করেছেন। তার বাস্তব অভিজ্ঞতা তুলে ধরে শিক্ষার্থীদের মধ্যে উদ্ভাবন এবং উদ্যোক্তাকে উৎসাহিত করার গুরুত্বের ওপর জোর দিয়ে ভবিষ্যতের ইভেন্টগুলির জন্য একটি উচ্চমান নির্ধারণ করেন তিনি।

উল্লেখ্য, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি (ডিআইইউ), উদ্ভাবন এবং উদ্যোক্তা প্রচারে অগ্রগামী হিসাবে স্বীকৃত, স্টার্টআপ সংস্কৃতি লালন-পালনের ক্ষেত্রে অনেকটা এগিয়ে রয়েছে। ডিআইইউ একটি উদ্যোক্তা উন্নয়ন তহবিলের মাধ্যমে তার ছাত্রদের সমর্থন ও সহযোগিতা করে থাকে এবং ব্যবসায়িক ইনকিউবেটর নিয়ে গর্ব করে, যা অসংখ্য আন্তর্জাতিক বিশ্ববিদ্যালয়কে আকর্ষণ করেছে। এই ইভেন্টটি বিশ্বব্যাপী সহযোগিতা এবং উদ্যোক্তা শিক্ষার প্রচারের জন্য ডিআইইউ-এর চলমান প্রচেষ্টার আরেকটি ধাপ চিহ্নিত করে। ডিআইইউ এবং আলা-তু ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির মধ্যে সহযোগিতা উভয় দেশেই স্টুডেন্ট স্টার্টআপ ইকোসিস্টেমকে শক্তিশালী করতে এবং উন্নত করার জন্য প্রস্তুত। এই অংশীদারিত্ব তরুণ উদ্যোক্তাদের জন্য ভবিষ্যৎ সমৃদ্ধি এবং উন্নয়নের জন্য উল্লেখযোগ্য সুবিধা প্রদান করবে বলে আশা করা হচ্ছে।

প্রধান অতিথি হিসেবে ড. সবুর খানের অংশগ্রহণ শুধুমাত্র দুটি বিশ্ববিদ্যালয়ের মধ্যে একটি দৃঢ় বন্ধনই তৈরি করেনি, বরং স্টার্টআপকে সমর্থন করার লক্ষ্যে ভবিষ্যতের যৌথ কর্মসূচি ও উদ্যোগের দরজাও খুলে দিয়েছে। ‘আলা-তু হাব ব্যাটল’ সফল আয়োজন ডিআইইউ এবং আলা-তু ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির উদ্ভাবন এবং পরবর্তী প্রজন্মের উদ্যোক্তাদের সমর্থন করার জন্য যৌথ দৃষ্টিভঙ্গির প্রমাণ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *