জাতিসঙ্ঘকে “বিশ্ব মোবাইল বন্ধ দিবস” পালনের পরামর্শ দিলেন ঢাবি অধ্যাপক

জাতিসঙ্ঘকে “বিশ্ব মোবাইল বন্ধ দিবস” পালনের পরামর্শ দিলেন ঢাবি অধ্যাপক

জাতিসঙ্ঘকে “বিশ্ব মোবাইল বন্ধ দিবস” পালনের পরামর্শ দিয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ ফজলুর রহমান। গতকাল তার ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে পরামর্শটি দিয়েছেন এ প্রতিথযশা শিক্ষাবিদ।

বহুগ্রন্থের প্রণেতা এ বুদ্ধিজীবী দীর্ঘদিন ঢাবির আরবি বিভাগে অধ্যাপনা করেছেন। বর্তমানে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়টির আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটের আরবি ভাষার খন্ডকালীন শিক্ষক।

এক সময়ের বিসিএস ক্যাডার এ শিক্ষাবিদ তার ফেসবুক পেজে লেখেন, জাতিসঙ্ঘ বছরের বিভিন্ন দিনে বিভিন্ন দিবস পালন করে থাকে। কয়েকবছর আগে এ রকম একটি দিবস পালনের কথা মনে পড়ছে। দিবসটির নাম ছিল, “বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস”। এ সব দিবস পালনের উদ্দেশ্য সারা পৃথিবীর মানুষকে বিশেষ বিশেষ ব্যাপারে সচেতন করা। পালিত দিবসটি চলে গেলে মানুষ আবারো সংশ্লিষ্ট ব্যাপারে অসচেতন হয়ে গেলেও এর কিছুটা রেশ হয়তো থেকে যায়। বিশ্ব হাত ধোয়া দিবসের তাৎপর্য ছিল, অনেক মানুষ আ-ধোয়া হাতেই খাবার জিনিস ধরাসহ একটার পর একটা কাজ করতে থাকে, যা জনস্বাস্থ্য রক্ষায় ঝুঁকিপূর্ণ। ঐ দিবসটি পালনের ফলে পরবর্তীতে মানুষের বারে বারে হাত ধোয়ার অভ্যাস কতটুকু হয়েছে বলা মুশকিল। তবে “তা কোন কাজেই আসেনি” এমনটি বলা যাবে না।

বর্তমান পৃথিবীতে আবালবৃদ্ধবনিতার একটি অভ্যাসকে অ্যাড্রেস করার জন্য জাতিসঙ্ঘ একটি অতি জরুরী দিবস পালন করে দেখতে পারে। দিবসটির নাম হতে পারে “বিশ্ব মোবাইল বন্ধ দিবস”। এ দিবসটি পালন করতে বৃদ্ধ, প্রৌঢ়, যুবক, তরুণ, শিশু ‌‌নির্বিশেষে সারা পৃথিবীর সকল নরনারী একদিনের জন্য যার যার মোবাইল ফোন বন্ধ রাখবে। এতে শ্বাস বন্ধ হয়ে কিছু কিছু প্রাণহানির সম্ভাবনা থাকলেও মানবজাতির বৃহত্তর কল্যাণে এটা মেনে নেয়া উচিত কিনা জাতিসঙ্ঘ তা ভেবে দেখতে পারে।

দেশবরেণ্য এ বুদ্ধিজীবীর জাতিসঙ্ঘকে দেয়া “বিশ্ব মোবাইল বন্ধ দিবস” পালনের এ পরামর্শকে অনেকেই সাধুবাদ জানিয়েছেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *