ট্রান্সজেন্ডার ও সমকামিতা

ট্রান্সজেন্ডার ও সমকামিতা

যেখানে কুকুর বিড়ালের মত পশুরা যৌন সম্পর্কের জন্য বিপরীত লিঙ্গের সাথে মিলিত হয়, সেখানে আশরাফুল মাখলুকাত হিসেবে মানুষের দ্বারা সমকামিতার মতো এমন নিকৃষ্ট কাজ সভ্য সমাজে হতে পারে না।

আমাদের দেশীয় আইনে সমকামিতা অপরাধ। পাশ্চাত্য সংস্কৃতিতে হাবুডুবু খাওয়া বিকৃত মানসিকতার লোক এদেশে দিন দিন বাড়ছে। এসব লোক নিজেরাই শুধু সমকামি হয়ে থেমে থাকেনি, বরং তাদের এই বিকৃত চিন্তাধারা ছড়িয়ে দেয়ার জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টা করছে।

সাম্প্রতি সপ্তম শ্রেণির পাঠ্য বইয়ে শরিফার গল্প ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় ট্রান্সজেন্ডার কোটা সমকামিতা প্রমোট করার উদাহরণ। মূলত ট্রান্সজেন্ডার হল সমকামিতার পরবর্তী পদক্ষেপ।

কোন নারী সমকামি হলে সে একজন নারীকে স্ত্রী হিসেবে চায় এবং নিজেকে পুরুষ হিসেবে কল্পনা করে। আর তখন সে পুরুষ সাজতে পুরুষের পোষাক পরে, নাম পরিবর্তন করে পুরুষের নাম রাখে, হরমোন পরিবর্তন, ভয়েস থেরাপি, কেউ কেউ অস্ত্রোপচারও করে থাকে।
তবে যতই অস্ত্রোপচার করুক না কেন মূলত সে নারীই থাকে। সাম্প্রতি এমন স্বঘোষিত পুরুষের সন্তান জন্মদানের অসংখ্য উদাহরণ রয়েছে। তেমনি একজন পুরুষও নিজেকে নারী কল্পনা করে নারী সাজতে পারে।

ইসলামে সমকামিতা কঠোরভাবে নিষিদ্ধ এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ। আল্লাহ তাআলা হযরত লূত (আঃ) এর সম্প্রদায়ের ধংস করেছিলেন এই অপরাধে। আল্লাহ তাআলা বলেন,
وَلُوطًا إِذْ قَالَ لِقَوْمِهِ أَتَأْتُونَ الْفَاحِشَةَ وَأَنْتُمْ تُبْصِرُونَ
অর্থ: স্মরণ কর লূতের কথা, তিনি তাঁর কওমকে বলেছিলেন, তোমরা কেন অশ্লীল কাজ করছ? অথচ এর পরিণতির কথা তোমরা অবগত আছ! (সূরাঃ নমল, আয়াতঃ ৫৪)

أَئِنَّكُمْ لَتَأْتُونَ الرِّجَالَ شَهْوَةً مِنْ دُونِ النِّسَاءِ ۚ بَلْ أَنْتُمْ قَوْمٌ تَجْهَلُونَ
অর্থ: তোমরা কি কামতৃপ্তির জন্য নারীদেরকে ছেড়ে পুরুষে উপগত হবে? তোমরা তো এক বর্বর সম্প্রদায়। (সূরাঃ নমল, আয়াতঃ ৫৫)

فَمَا كَانَ جَوَابَ قَوْمِهِ إِلَّا أَنْ قَالُوا أَخْرِجُوا آلَ لُوطٍ مِنْ قَرْيَتِكُمْ ۖ إِنَّهُمْ أُنَاسٌ يَتَطَهَّرُونَ
অর্থ: উত্তরে তাঁর কওম শুধু এ কথাটিই বললো, লূত পরিবারকে তোমাদের জনপদ থেকে বের করে দাও। এরা তো এমন লোক যারা শুধু পাকপবিত্র সাজতে চায়। (সূরাঃ নমল, আয়াতঃ ৫৬)

فَأَنْجَيْنَاهُ وَأَهْلَهُ إِلَّا امْرَأَتَهُ قَدَّرْنَاهَا مِنَ الْغَابِرِينَ
অর্থ: অতঃপর তাঁকে ও তাঁর পরিবারবর্গকে উদ্ধার করলাম তাঁর স্ত্রী ছাড়া। কেননা, তার জন্যে ধ্বংসপ্রাপ্তদের ভাগ্যই নির্ধারিত করেছিলাম। (সূরাঃ নমল, আয়াতঃ ৫৭)

ইসলামে সমকামিতার শাস্তি মৃত্যুদণ্ড। রাসুল (সঃ) সমকামিতার শাস্তি হিসেবে মৃত্যুদণ্ড নির্দেশ দিয়েছেন। (তিরমিজী- ৩৫৬১)

যেখানে কুকুর বিড়ালের মত পশুরা যৌন সম্পর্কের জন্য বিপরীত লিঙ্গের সাথে মিলিত হয়, সেখানে আশরাফুল মাখলুকাত হিসেবে মানুষের দ্বারা সমকামিতার মতো এমন নিকৃষ্ট কাজ সভ্য সমাজে হতে পারে না। এ বিষয়ে সবাইকে সচেতন ও সতর্ক হতে হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *