ডিবিতে অভিযোগ দিলেন তিশার বাবা

ডিবিতে অভিযোগ দিলেন তিশার বাবা

আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী সিনথিয়া ইসলাম তিশার বাবা মো. সাইফুল ইসলাম ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের কাছে অভিযোগ দিয়েছেন।

রবিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (গোয়েন্দা) হারুন অর রশীদের কাছে লিখিত অভিযোগ দেন তিনি।

অভিযোগের বিষয়ে তিশার বাবা সাইফুল ইসলাম জানান, গত ১২ ফেব্রুয়ারি সকাল ১০টা ৩৮ মিনিটে অজ্ঞাতনামা এক ব্যক্তি হোয়াটসঅ্যাপ থেকে ফোন করে আমাকে বলেন, আপনি কি তিশার আব্বু বলছেন? আমি হ্যাঁ বললে তিনি বলেন, আপনি বেশি বাড়াবাড়ি কইরেন না, বেশি বাড়াবাড়ি করলে আপনার মেয়েকে মেরে ফেলবো।

তিশার বাবা ডিবির কাছে আরও অভিযোগ করেন, আমার মোবাইলে দুটি নম্বর থেকে রাত ১টা ১৯ ও ১টা ১৫ মিনিটের দিকে কল আসে। গভীর রাতে ঘুমিয়ে যাওয়ায় সকালে উঠে ওই দুই নম্বরের মিসড কল দেখতে পাই।

বিষয়টি তদন্ত করে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের কথা জানিয়েছেন ডিবিপ্রধান মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ।

এর আগে ১২ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় নিজের ও স্ত্রীর নিরাপত্তা চাইতে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ কার্যালয়ে যান আলোচিত খন্দকার মুশতাক আহমেদ ও সিনথিয়া ইসলাম তিশা দম্পতি।

পরে হত্যার হুমকি পেয়েছে জানিয়ে নিরাপত্তা চেয়ে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) কাছে অভিযোগ করেন তারা।

খন্দকার মুশতাক বলেন, ৯ ফেব্রুয়ারি বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে বইমেলায় গেলে কিছু যুবক তাকে ও তার স্ত্রী সিনথিয়াকে গালাগালি করেন। আবার বইমেলায় গেলে তাদের গুলি করে হত্যা করা হবে বলে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে হুমকি দেন। এ কারণে তিনি ডিবিতে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

এ বিষয়ে ডিবির প্রধান মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ সাংবাদিকদের বলেন, হত্যার হুমকির বিষয়টি ডিবি গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করছে। জড়িত ব্যক্তিদের শনাক্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

গত শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বইমেলায় স্ত্রীকে নিয়ে নিজের লেখা বইয়ের প্রচারণায় যান মুশতাক। একপর্যায়ে পাঠক, ক্রেতা ও দর্শনার্থীদের ক্ষোভের মুখে পড়েন এই দম্পতি। দুয়োধ্বনি দিয়ে তাদের বইমেলা প্রাঙ্গণ থেকে বের হয়ে যেতে বাধ্য করা হয়।

ওইদিন বইমেলায় মিজান পাবলিশার্সে যান মুশতাক-তিশা দম্পতি। সেখানে ছিল মুশতাকের লেখা বই ‘তিশার ভালোবাসা’ ও ‘তিশা অ্যান্ড মুশতাক’।

তাদের দেখে রীতিমতো ভিড় করছিলেন মেলায় আসা উৎসুক দর্শনার্থীদের অনেকে। মুশতাক-তিশা দম্পতি তখন ‘তিশার ভালোবাসা’ বইটি হাতে নিয়ে পাঠকদের কিনতে উৎসাহিত করছিলেন। এসময় একদল ক্রেতা-দর্শনার্থী তাদের তাড়া করেন। তাদের উদ্দেশে ‘ভুয়া ভুয়া’ ও ‘ছি ছি ছি ছি’ দুয়োধ্বনি দেন।

পরে মেলা প্রাঙ্গণে থাকা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা এ দম্পতিকে নিরাপদে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটের গেট দিয়ে মেলা প্রাঙ্গণ থেকে বের হয়ে যেতে সাহায্য করেন।

এ ঘটনায় পরদিন শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) দিনগত রাতে নিজেদের নিরাপত্তা চেয়ে শাহবাগ থানায় গিয়ে জিডি করেন আলোচিত এ দম্পতি।

রাজধানীর মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের গভর্নিং বডির সদস্য খন্দকার মুশতাক আহমেদ একই কলেজের শিক্ষার্থী সিনথিয়া ইসলাম তিশাকে বিয়ে করেন। তাদের এ অসম বিয়ে নিয়ে ব্যাপক আলোচনা তৈরি হয়। যদিও শুরু থেকে এ দম্পতি জানান, তারা পরস্পরকে ভালোবেসে বিয়ে করেছেন। তবে বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *