ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটিতে অষ্টম সিজেন বাংলাদেশ নেটওয়ার্কিং সম্মেলন শেষ হয়েছে

ড্যাফোডিল ইউনিভার্সিটিতে অষ্টম সিজেন বাংলাদেশ নেটওয়ার্কিং সম্মেলন শেষ হয়েছে

“ডিআইইউ ২০২৩ ঘোষণা: একটি টেকসই ভবিষ্যতের জন্য স্থানীয় এবং আঞ্চলিক মিডিয়ার অগ্রগতি” শীর্ষক খসড়া নীতিমালা উপস্থাপনের মাধ্যমে ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে অষ্টম সিজেন বাংলাদেশ নেটওয়ার্কিং সম্মেলন শেষ হয়েছে। রবিবার
(২৯ অক্টোবর’২৩) ডিআইইউ’র সাংবাদিকতা, গণমাধ্যম ও যোগাযোগ বিভাগ এবং ডয়চে ভেলে (ডিডব্লিউ) এর যৌথ উদ্যোগে বিরুলিয়ায়স্থ ড্যাফোডিল স্মার্ট সিটিতে দুই দিনব্যাপী আয়োজিত “বাংলাদেশে স্থানীয় ও আঞ্চলিক গণমাধ্যমের জন্য অর্থনৈতিক স্থায়িত্ব নিশ্চিতকরণ” শীর্ষক সম্মেলনটি সফলভাবে সম্পন্ন হয়।

সম্মেলনে সাংবাদিকতা, গণমাধ্যম এবং যোগাযোগ বিভাগের শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যম বিশেষজ্ঞ, আঞ্চলিক পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক এবং সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষকসহ প্রায় ৭০ জন প্রতিনিধি অংশগ্রহণ করেন। এছাড়াও সম্মেলনের সমাপনী দিনে অনলাইন প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে অনেক সম্মানিত অতিথি অংশ নেন।

সম্মেলনের সমাপনী অধিবেশনে “মানসম্পন্ন সাংবাদিকতা ও রাজস্ব: সাংবাদিকতা শিক্ষা এবং পেশাদারিত্বে ভবিষ্যতের সাংবাদিকদের জড়িত করা” বিষয়ক কর্মশালা পরিচালনা করেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক এবং চেয়ারম্যান কাজী এম আনিসুল ইসলাম। এ অধিবেশনের মাধ্যমে দু’দিনের অধিবেশনে আলোচিত বিষয়গুলির সমাধান বের করার চেষ্টা করা হয়। অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে দৈনিক প্রথম আলোর প্রধান ডিজিটাল বিজনেস অফিসার জনাব এ বি এম জাবেদ সুলতান পিয়াস বলেন, “প্রথম আলো গণমাধ্যম হিসেবে সর্বপ্রথম দেশে অনলাইনে রাজস্ব আয়ের যাত্রা শুরু করেছে। সব সংবাদপত্রের জন্য এখনই তাদের অনলাইন উপস্থিতি প্রতিষ্ঠা করার উপযুক্ত সময়। তাদের উচিত ফেসবুক ও ইউটিউবের মতো মাধ্যম ব্যবহার করা এবং নিজস্ব ওয়েবসাইটগুলি থেকে উৎপন্ন আয় তদারকির উপর জোর দেয়া”।

সম্মেলনে প্রধান অতিথি তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব জনাব ফারুক আহমেদ বলেন, “সংবাদপত্র এবং অন্যান্য যোগাযোগ মাধ্যমগুলোকে সংবাদ প্রকাশে সতর্কতা অবলম্বনের পাশাপাশি অনলাইন উপস্থিতিও বাড়াতে হবে। আমি বিশ্বাস করি, সরকার এগুলো বাস্তবায়নে কোনো কমতি রাখবেন না। এক্ষেত্রে সমস্ত অংশীদারদের কাছ থেকেও একটি সম্মিলিত প্রতিশ্রুতি প্রয়োজন”।

বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা, গণমাধ্যম ও যোগাযোগ বিভাগের প্রধান পৃষ্ঠপোষক অধ্যাপক ড. গোলাম রহমানের সভাপতিত্বে এবং বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. নজরুল ইসলামের সহ-সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন সম্মেলনের আহবায়ক এবং ডিআইইউ’র সাংবাদিকতা, গণমাধ্যম ও যোগাযোগ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোঃ আব্দুল কাবিল খান। উপস্থিত ছিলেন সম্মেলনের সহ-আহবায়ক ও বিভাগটির প্রধান সহকারী অধ্যাপক আফতাব হোসেন।

শনিবার (২৮ অক্টোবর) উদ্বোধনী অধিবেশনে “স্থানীয় এবং আঞ্চলিক গণমাধ্যম: প্রতিকূল সময়ে টিকে থাকা” শীর্ষক বক্তৃতায় প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক কালের কণ্ঠ পত্রিকার সম্পাদক শাহেদ মোহাম্মদ আলী। এছাড়াও অনুষ্ঠিত হয়েছিল “স্থানীয় এবং আঞ্চলিক মিডিয়ার দৃশ্যপট বোঝা” এবং অংশীজনদের নিয়ে “বাংলাদেশী আঞ্চলিক গণমাধ্যমের জন্য উদ্ভাবনী জীবিকার মানদন্ড অন্বেষণ” শীর্ষক দুটি পূর্ণাঙ্গ অধিবেশন। একইসাথে দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আসা শিক্ষার্থীদের নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গল্প বলার কৌশল বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *