ঢাবিতে ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগ এলামনাইদের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত

ঢাবিতে ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগ এলামনাইদের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগ এলামনাই অ্যাসোসিয়েশনের দ্বিতীয় পুনর্মিলনী-২০২৪ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (২১ জানুয়ারি) সকাল ১০টা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় টিএসসি মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর (প্রশাসন) ও ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ঢাকাস্থ ইরানী রাষ্ট্রদূত জনাব মানসুর চাভুশি, কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আবদুল বাছির, ঢাকাস্থ ইরানী সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের কাউসিলর জনাব সাইয়্যেদ রেজা মীর মোহাম্মাদি, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের চেয়ারম্যান ড. মো. মুমিত আল রশিদ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের ভিজিটিং প্রফেসর ড. মাজিদ পুইয়ান।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের অধ্যাপক ও এলামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি এবং স্যার এ এফ রহমান হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. কে এম সাইফুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের অধ্যাপক ও এলামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো. আবুল কালাম সরকার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. আতাউল্লাহ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগ এলামনাই অ্যাসোসিয়েশনের উপদেষ্টা গবেষক ড. মুহাম্মদ ঈসা শাহেদী প্রমুখ।

অনুষ্ঠান উপস্থাপনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আহসানুল হাদী।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ঢাবির প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর (প্রশাসন) ও ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ বলেন, ফারসি ভাষা খুবই উন্নমানের ভাষা। এই ভাষা পড়লে আমাদের জীবন পরিবর্তন হয়ে যাবে। তিনি বলেন, শেখ সাদী, হাফিজ, রুমিসহ ফারসি ভাষার নামকরা কবিদের বইগুলো বাংলায় অনুবাদ করলে এই ভাষা সম্পর্কে আরো অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানা যাবে।

আলোচনা শেষে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আধুনিক ভাষা ইনস্টিটিউটের ফারসি ভাষার অধ্যাপক শামীম বানুর হাতে আজীবন সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন। অনুষ্ঠানে ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা স্মৃতিচারণ করেন। মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে পুনর্মিলনী শেষ হয়। (বিজ্ঞপ্তি)

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *