নাটোরে সেই অপহৃত দেলোয়ারকে সিংড়ার চেয়ারম্যান ঘোষণা

নাটোরে সেই অপহৃত দেলোয়ারকে সিংড়ার চেয়ারম্যান ঘোষণা

নাটোরের সিংড়া উপজেলা পরিষদে নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সেই দেলোয়ার হোসেনকে চেয়ারম্যান ঘোষণা করা হয়েছে। যিনি প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর হাতে অপহরণ ও মারধরের শিকার হয়েছিলেন বলে অভিযোগ উঠেছিল।

মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তার সভা কক্ষে উপজেলা পরিষদে নির্বাচনের প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ শেষে দেলোয়ার হোসেনকে চেয়ারম্যান ঘোষণা করেন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রির্টানিং অফিসার আব্দুল লতিফ শেখ।

বেসরকারিভাবে নির্বাচিত চেয়ারম্যান মো. দেলোয়ার হোসেন পাশা সিংড়ার কলমের পারসাঐল এলাকার মো. শের আলীর ছেলে।

এর আগে সিংড়া উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দু’জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছিলেন। যাচাই-বাছাই শেষে নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা দুই প্রার্থী লুৎফুল হাবিব রুবেল ও দেলোয়ার হোসেনের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করেন।

লুৎফুল হাবিব রুবেল সিংড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক এবং সিংড়ার সংসদ সদস্য ও আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের শ্যালক। উপজেলা নির্বাচনে অংশ নিতে তিনি শেরকোল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করেছিলেন।

এর মধ্যে গত ১৫ এপ্রিল বিকালে নাটোর জেলা নির্বাচন কার্যালয়ের সামনে থেকে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী দেলোয়ার হোসেনকে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে যায় একদল লোক। কয়েক ঘণ্টা পর তাকে বাড়ির সামনে ফেলে যায় তারা।

অভিযোগ ওঠে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী লুৎফুল হাবিব রুবেল তাকে অপহরণ ও মারধর করেছেন।

ওই ঘটনায় রুবেলকে নির্বাচন কমিশনে তলব করা হয় এবং উপজেলা আওয়ামী লীগ থেকেও তাকে কারণ দর্শাতে বলা হয়।

পরে গত ১৯ এপ্রিল হাসপাতালে গিয়ে দেলোয়ারকে দেখে এসে দুঃখ প্রকাশ করেন পলক এবং রুবেলকে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর নির্দেশ দেন।

এর পর মনোনয়ন প্রত্যাহারের একদিন আগেই রবিবার চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান রুবেল। তার পক্ষে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং অফিসারের কাছে মনোনয়ন প্রত্যাহার পত্রটি জমা দেন তাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিনহাজ উদ্দিন।

এতে করে সিংড়া উপজেলা পরিষদের শুধুমাত্র দেলোয়ার হোসেন প্রার্থী থাকায় মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) তাকে বেসরকারিভাবে নির্বাচনের রিটার্ন ‘ঙ ফরম’ এ লিখিতভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করেন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা।

প্রথম ধাপের উপজেলা নির্বাচনে আগামী ৮ মে নাটোরে তিনটি উপজেলায় ভোট হবে। এই নির্বাচনে বৈধ প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্দ দিয়েছেন জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা।

মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে জেলা নির্বাচন কার্যালয়ের সভা কক্ষে উপজেলার প্রার্থীদের হাতে প্রতীক তুলে দেন জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা আব্দুল লতিফ শেখ।

তিনটি উপজেলার মধ্যে নাটোর সদর উপজেলায় পাঁচ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী, ভাইস চেয়ারম্যান পদে পাঁচ জন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে দুই জনকে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়।

নলডাঙ্গা উপজেলায় প্রতীক দেওয়া হয় আট জন চেয়ারম্যান প্রার্থী, ভাইস চেয়ারম্যান পদে পাঁচ জন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে পাঁচ জন প্রতিদ্বন্দ্বীকে।

অন্যদিকে, সিংড়া উপজেলায় চেয়ারম্যান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। এ উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে চার জন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে তিন জন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেয়া হয়।

এসময় তিনটি উপজেলার নির্বাচনে অংশ নেয়া প্রার্থীসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। প্রতীক পেয়েই নির্বাচনী প্রচার শুরু করেন প্রার্থীরা।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *