“পরিবারে পুষ্টিযোগান ও পরিবেশ রক্ষায় সবজি চাষ গুরুত্বপূর্ণ”

“পরিবারে পুষ্টিযোগান ও পরিবেশ রক্ষায় সবজি চাষ গুরুত্বপূর্ণ”

সবজি যোগায় পুষ্টি, রক্ষা করে পরিবেশ। লিডিং ইউনিভার্সিটি পরিবারে পুষ্টির যোগানে সবজি বিতরণ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান দানবীর ড. সৈয়দ রাগীব আলী। বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব জমিতে উৎপাদিত লাউ, বাঁধাকপি, শসা, মূলাসহ বিভিন্ন ধরনের শাকসবজি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারিদের মধ‍্যে বিতরণ করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (২৫ জানুয়ারি ২০২৪) দুপর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এ সবজি বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

লিডিং ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার শ্রীযুক্ত বনমালী ভৌমিকের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে দানবীর ড. সৈয়দ রাগীব আলী বলেন, দেশের অর্থনীতি, পরিবেশ ও স্বাস্থ্যের উন্নতির ক্ষেত্রে সবজি চাষ গুরুত্বপূর্ণ। সবজি চাষ খাদ্য নিরাপত্তাহীনতা হ্রাস করে, পরিবারের সদস্যদের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটায় এবং পরিবেশ রক্ষা করে। পাশাপাশি পরিবারে প্রতিদিন তাজা ও পুষ্টিকর শাকসবজির যোগান পাওয়ায় তা থেকে তাদের ভিটামিন, খনিজ ও উদ্ভিজ্জ প্রোটিনের চাহিদা পূরণ হয়। তিনি বলেন, ট্রেজারার বনমালী ভৌমিকের উদ‍্যোগে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের জমিতে প্রতিবছর শাকসবজি চাষ এবং সেগুলো শিক্ষক ও কর্মকর্তাদের মধ‍্যে বিতরণ খুবই প্রশংসনীয় এবং এ উদ‍্যোগ তাদেরকে নিজস্ব উদ‍্যোগে শাকসবিজি চাষে উদ্বুদ্ধ করবে।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রধান করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মো. মফিজুল ইসলাম।

লিডিং ইউনিভার্সিটির সহকারী রেজিস্ট্রার ও জনসংযোগ কর্মকর্তা রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ আলমগীর হোসাইনের সঞ্চালনায় সবজি বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য প্রদান করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ব‍্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. বশির আহমেদ ভুঁইয়া, কলা ও আধুনিক ভাষা অনুষদের ডিন ড. মো. রেজাউল করিম, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর মো. মাহববুর রহমান। সবজির পুষ্টিগুণ ও বিভিন্ন ধরনের সবজির উপকারিতা উল্লেখ করে বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের পাবলিক হেলথ বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ডা. মো. আব্দুল মজিদ মিয়া। এতে আরও বক্তব্য প্রদান করেন ব‍্যবসায় প্রশাসন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. মোহাম্মদ শাহানশাহ মোল্লা এবং কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের বিভাগীয় প্রধান রুমেল এম. এস. রহমান পীর। অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করে লিডিং ইউনিভার্সিটির বিবিএ প্রোগ্রামের শিক্ষার্থী রহিমা আক্তার রাখী।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *