প্রয়াত শিল্পপতি ইঞ্জিনিয়ার রাশেদ মাকসুদ খানের স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

প্রয়াত শিল্পপতি ইঞ্জিনিয়ার রাশেদ মাকসুদ খানের স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (ডিসিসিআই) সাবেক সভাপতি, বিশিষ্ট শিল্পপতি, মরহুম ইঞ্জিনিয়ার রাশেদ মাকসুদ খানের স্মরণ সভা, মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (২৭ এপ্রিল) বিকাল সাড়ে ৪টায় তেজগাঁও বিমানঘাঁটির ফ্যালকন হলে তাঁর পরিবারের পক্ষ থেকে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

গত ২০ এপ্রিল (শনিবার) বিকালে মিরপুর ডিওএইচএসে মেয়ের বাসায় অসুস্থ হয়ে পড়েন ৮৪ বছর বয়সী রাশেদ মাকসুদ খান। ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। রবিবার (২১ এপ্রিল) গুলশান সোসাইটি মসজিদে বাদ জোহর জানাজা শেষে মরহুমকে বনানী কবরস্থানে সমাহিত করা হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের জ্যেষ্ঠ অধ্যাপক ড. কে এম সাইফুল ইসলাম খান সঞ্চালিত স্মরণ সভায় আলোচনা করেন ট্রেড সার্ভিসেস ইন্টারন্যাশনাল এর এমডি, বিশিষ্ট শিল্পপতি সৈয়দ মাহমুদুল হক, সহকারী বিমান বাহিনী প্রধান (অপারেশন্স) এয়ার ভাইস মার্শাল হাসান মাহমুদ খান, চিটাগাং স্টক এক্সচেঞ্জের চেয়ারম্যান জনাব আসিফ ইব্রাহিম, ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির প্রেসিডেন্ট জনাব আশরাফ আহমেদ, বুয়েটের কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. সৈয়দা সুলতানা রাজিয়া, বুয়েট কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং এলামনাই এসোসিয়েশনের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মো. হাবিল উদ্দিন, অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যান্ট কর্নেল শাহাদত হোসেন, বিটিআই এর এমডি ইঞ্জিনিয়ার ফাইজুর রহমান খান।

শুরুতে প্রয়াত ইঞ্জিনিয়ার রাশেদ মাকসুদ খানের সংক্ষিপ্ত জীবন বৃত্তান্ত তুলে ধরেন তাঁর পৌত্র মোহাম্মদ জুনায়েদ হোসাইন এবং শেষে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন মরহুমের কন্যা ফারজানা রুবাইয়াত খান (সোমা)। দোয়া পরিচালনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক এবং লালকুঠি দরবার শরীফের পির ড. আহসানুল হাদী।

এছাড়াও ব্যবসায়িক বিভিন্ন সংগঠনের সাবেক-বর্তমান নেতৃবৃন্দ, বুয়েট কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের এলামনাইবৃন্দ, আত্মীয়-স্বজন ও সুধীজন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন

সভায় ইঞ্জিনিয়ার আরএম খানের জীবন ও কর্মের উপর গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করা হয় এবং মহান আল্লাহর নিকট ভুল-ত্রুটি মার্জনা চেয়ে তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করা হয়।

বাংলাদেশের বিশিষ্ট শিল্পপতি ও ব্যবসায়ী নেতা ইঞ্জিনিয়ার রাশেদ মাকসুদ খান ১৯৩৯ সালের ১০ মে ফরিদপুর জেলায় এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি দেশের শিল্প ও বানিজ্য ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন।

বুয়েটের কেমিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রাক্তনী ইঞ্জিনিয়ার রাশেদ মাকসুদ খান ১৯৯৫ ও ১৯৯৮ সালে ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। শিল্পপতি রাশেদ মাকসুদ খান বেঙ্গল ফাইন সিরামিকস্ লিমিটেড’-এর প্রতিষ্ঠাতা, এভারেস্ট ফাইন পোর্সলিন লিমিটেডের চেয়ারম্যান এবং বাংলাদেশ জার্মান ফাইন ফুটওয়্যার লিমিটেডের পরিচালক ছিলেন। তার প্রতিষ্ঠানগুলো সিরামিক উৎপাদন ও রপ্তানি, তৈরি পোশাক এবং পাদুকা ব্যবসার সঙ্গে সম্পৃক্ত।

এছাড়া তিনি বাংলাদেশ-মিয়ানমার বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিল (বিএমবিপিসি), বাংলাদেশ-থাই চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (বিটিসিসিআই) এবং বাংলাদেশ-ফিলিপিন্স চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (বিপিসিসিআই) প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন।

ইন্টারন্যাশনাল চেম্বার অব কমার্স বাংলাদেশের (আইসিসিবি) পর্ষদসহ বিভিন্ন বাণিজ্যিক সংগঠনের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন রাশেদ মাকসুদ খান।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *