ফিলিস্তিনের রাফায় ইসরায়েলি হামলা, শিশুসহ ১৬ জন নিহত

ফিলিস্তিনের রাফায় ইসরায়েলি হামলা, শিশুসহ ১৬ জন নিহত

ফিলিস্তিনের রাফায় রাতভর বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। এতে শিশুসহ ১৬ জন নিহত হয়েছে। রাফার পূর্বাঞ্চলের একটি বাড়িতে হামলা চালায় তারা। পরে হামলাকৃত বাড়িটি থেকে তিন শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়। খবর: আল জাজিরার।

এর আগে গাজা উপত্যকার দক্ষিণাঞ্চলকে নিরাপদ অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করা হলেও এখন সেখানেও হামলা চালানো হচ্ছে। গাজার কোনো স্থানই এখন আর নিরাপদ নয় বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ। প্রতিদিনই গাজার বিভিন্ন জায়গায় হামলা চালিয়ে নিরীহ ফিলিস্তিনিদের হত্যা করা হচ্ছে।

গত ৭ অক্টোবর ইসরায়েলের সীমান্তে প্রবেশ করে আকস্মিক হামলা চালায় ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাস। এরপর থেকেই গাজায় পাল্টা আক্রমণ চালিয়ে আসছে ইসরায়েল।

তিন মাসের বেশি সময় ধরে ইসরায়েলি বাহিনীর গাজায় চালানো হামলায় এখন পর্যন্ত প্রায় সাড়ে ২৪ হাজার ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে অধিকাংশই শিশু। আহত হয়েছে আরও সাড়ে ৬১ হাজার।

এদিকে জাতিসংঘ অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় তাৎক্ষণিক যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়েছে আবারও। সুইজারল্যান্ডের ডেভোসে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের এক সম্মেলনে এই আহ্বান জানান সংস্থাটির মহাসচিব অ্যান্তনিও গুতেরেস। এর আগেও জাতিসংঘের পক্ষ থেকে গাজায় যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানানো হয়।

সম্মেলনে গুতেরেস গাজায় যুদ্ধ আন্তর্জাতিক আইনে লঙ্ঘন বলে উল্লেখ করেন। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এই যুদ্ধ বন্ধের জন্য তেমন কিছুই করছে না বলেও তিনি জানান।

গাজায় নারী ও শিশু-সহ বেসামরিক নাগরিক হত্যা করা হচ্ছে জানিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন জাতিসংঘ মহাসচিব। সেখানে তাদের নিজেদের বাড়ি-ঘর ছেড়ে যেতে বাধ্য করা এবং কোনো ধরনের মানবিক সহায়তা সরবরাহের অনুমতি দেওয়ায় গুতেরেস দুঃখ প্রকাশ করেন।

গুতেরেস বলেন, সেখানে তাৎক্ষণিক যুদ্ধবিরতির জন্য আমি আবারও আহ্বান জানাচ্ছি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *