বঙ্গবন্ধু শান্তি পদক চালু হচ্ছে

বঙ্গবন্ধু শান্তি পদক চালু হচ্ছে

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে একটি শান্তি পদক চালুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে শান্তি প্রতিষ্ঠায় অবদান রাখাসহ বিভিন্ন অবদানের জন্য ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান শান্তি পদক’ দেওয়া হবে।

সোমবার (২০ মে) মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে ব্রিফিংয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মাহবুব হোসেন জানান, প্রতি দুই বছর পরপর একজন ব্যক্তিকে এই পুরস্কার দেবে সরকার। পদকের জন্য মনোনীত ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে এক লাখ ডলার (প্রায় এক কোটি ১৭ লাখ টাকা) দেওয়া হবে। এছাড়া ৫০ গ্রাম ওজনের ১৮ ক্যারেটের স্বর্ণ পদক ও সনদ দেওয়া হবে।

সচিব জানান, পদক দেওয়ার ক্ষেত্রে পৃথিবীর যেকোনো স্থানে শান্তি প্রতিষ্ঠা, ক্ষুধা ও দারিদ্র্য থেকে মুক্তি, যুদ্ধ বন্ধ ও বিরতিতে অবদান রেখেছেন এমন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে মনোনয়ন দেওয়া হবে। বাংলাদেশসহ বিশ্বের যেকোনো দেশের রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রী, সংসদ সদস্যরা এ পদকের জন্য জন্য নাম প্রস্তাব করতে পারবেন। প্রতি বছর ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে পদকজয়ীর নাম ঘোষণা করবে সরকার। একই বছরের ২৩ মে অথবা এর আগে-পরের যেকোনো দিন পদকবিজয়ীর হাতে এ পদক তুলে দেওয়া হবে। পদক প্রদান অনুষ্ঠানটি বাংলাদেশেই হবে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, যে বছর পদক দেওয়া হবে তার আগের বছর কার্যক্রম শুরু করবে জুরি বোর্ড। সে হিসেবে এ বছরের জুন মাস থেকেই জুরি বোর্ডের কার্যক্রম শুরু হওয়ার কথা। আগামী বছরের ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে প্রথমবারের মতো এ পদক বিজয়ীর নাম ঘোষণা করা হবে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *