ব্র্যাক ইউনিভার্সিটিতে দুই দিনব্যাপী ক্যারিয়ার ফেয়ার শুরু

ব্র্যাক ইউনিভার্সিটিতে দুই দিনব্যাপী ক্যারিয়ার ফেয়ার শুরু

ব্র্যাক ইউনিভার্সিটিতে দুই দিনব্যাপী ক্যারিয়ার ফেয়ার শুরু হয়েছে। বুধবার (৫ জুন) এই মেলার আয়োজন করেছে ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির অফিস অফ ক্যারিয়ার সার্ভিসেস অ্যান্ড অ্যালামনাই রিলেশন্স। ফিনান্স, আইটি, টেলিকমিউনিকেশন্স, মাল্টিন্যাশনাল কর্পোরেশন, ফার্মাসিউটিক্যাল, ডেভেলপমেন্ট প্রতিষ্ঠানসহ ৮০টির বেশি প্রতিষ্ঠান এই ক্যারিয়ার ফেয়ারে অংশ নিচ্ছে। দুই দিনের এই মেলায় থাকছে অন-স্পট ইন্টারভিউ এবং কয়েকটি ক্যারিয়ার সেমিনার।

এই ক্যারিয়ার ফেয়ারের মাধ্যমে ব্র্যাক ইউনিভাসির্টির শিক্ষার্থী এবং অ্যালামনাইরা বিভিন্ন সেক্টরে কাজের সুযোগ ও চাকরিদাতা প্রতিষ্ঠানগুলো সম্পর্কে জানতে পারবেন। এর মাধ্যমে চাকরির বাজার সম্পর্কে তাদের ধারণা আরো পরিস্কার হবে। দুই দিনব্যাপী এই ক্যারিয়ার ফেয়ারে ইন্ডাস্ট্রি লিডার এবং বিশেষজ্ঞদের অংশগ্রহণে ক্যারিয়ার বিষয়ক বিশেষ সেশন রয়েছে। এই সেশনগুলো অ্যাকাডেমিক পড়াশোনার পাশাপাশি একজন দক্ষ মানবসম্পদ হিসেবে গড়ে উঠতে শিক্ষার্থীদের সহায়তা করবে। ‘লিডিং উইথ এ পারপাস: ইনসাইটস ফ্রম সিইওস জার্নি’ সেশনে ইন্ডাস্ট্রি লিডাররা তাদের সিইও হয়ে ওঠার অনুপ্রেরণামূলক গল্পগুলো শিক্ষার্থী ও অ্যালামনাইদের সামনে তুলে ধরবেন।

বুধবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাল্টিপারপাস হলে ক্যারিয়ার ফেয়ারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার প্রফেসর মোহাম্মদ মাহবুব রহমান। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন ব্র্যাক ব্যাংকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার সেলিম আর এফ হোসেন এবং থেরাপ বিডি লিমিটেডের এশিয়া, মিডল ইস্ট এবং নর্থ আফ্রিকা এবং আফ্রিকা অঞ্চলের বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ডিরেক্টর প্রত্যয় ইকবাল। অনুষ্ঠানে সমাপনী বক্তব্য দেন ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার ড. ডেভিড ডাউল্যান্ড।

সেলিম আর এফ হোসেন বলেন, ‘তরুণদের প্রতি বিনিয়োগকে আমরা ভবিষ্যতের প্রতি বিনিয়োগ মনে করি। এর মাধ্যমে আমরা আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মকে উদ্ভাবনী করে গড়ে তুলতে চাই।’ তিনি সঠিক মনোভাব ধরে রাখা, নীতি, প্রচেষ্টা এবং সেরা ফলাফল অর্জনে চেষ্টার ওপর গুরুত্বরোপ করেন। তিনি সুযোগের সবোর্চ্চ ব্যবহার করতে শিক্ষার্থীদের প্রতি আহবান জানান।

প্রফেসর মোহাম্মদ মাহবুব রহমান বলেন, ‘ক্যারিয়ার ফেয়ার শিক্ষার্থীদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এটি শিক্ষার্থীদের দেশ ও দেশের বাইরের চাকরির প্রেক্ষাপটটা বোঝায় এবং ক্যারিয়ার ফেয়ারের মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা সেই চাহিদা অনুযায়ী নিজেদের প্রস্তুত হরার একটা প্লাটফর্ম পেয়ে থাকে।’ ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা দেশের সেরা সব প্রতিষ্ঠানে সুনামের সাথে কাজ করছে বলে জানান প্রফেসর মাহবুব। তিনি বলেন, ‘আমরা ব্র্যাক ইউনিভার্সিটিতে মানসম্মত শিক্ষা প্রদানের মাধ্যমে দক্ষ গ্র্যাজুয়েট তৈরি করছি। আমাদের লিবারেল আর্টস কারিকুলাম শিক্ষার্থীদের দক্ষ করে গড়ে তোলার সাথে তাদের নৈতিক ও মানবিক করে গড়ে তোলে। ’

প্রত্যয় ইকবাল মনে করেন, এই ক্যারিয়ার ফেয়ারকে অ্যাকাডেমিয়া-ইন্ডাস্ট্রি কোলাবোরেশনের একটি গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক। যা শিক্ষার্থীদের নেটওয়ার্কিংয়ের জন্য গুরুত্বপূর্ণ একটি মাধ্যম।

বিকেলে ‘ক্যারিয়ার টক বাই ব্র্যাক ব্যাংক’ শীর্ষক বিশেষ সেশনে ক্যারিয়ার বিষয়ক আলোচনা করেন ব্র্যাক ব্যাংকের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও চিফ ফিনান্সিয়াল অফিসার এম মাসুদ রানা এবং হেড অফ হিউম্যান রিসোর্সেস আখতার উদ্দিন মাহমুদ। আলোচনা শেষে শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন আলোচকবৃন্দ। এই অনুষ্ঠানে একটি ভালো ক্যারিয়ার গড়তে শিক্ষার্থীদের যেসব দক্ষতা থাকা দরকার সে সম্পর্কে আলোচনা করেন মাসুদ রানা এবং আখতার উদ্দিন মাহমুদ।

বৃহস্পতিবার (৬ জুন) সকালে ‘লিডিং উইথ এ পারপাস: ইনসাইটস ফ্রম সিইওস জার্নি’ শীর্ষক বিশেষ আলোচনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখবেন সিটি ব্যাংকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার মাশরুর আরেফিন, ব্র্যাক ব্যাংকের ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার সেলিম আর এফ হোসেন, বার্জার পেইন্টস বাংলাদেশ লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর রপালী চৌধুরী এবং পাঠাও এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার ফাহিম আহমেদ।

ব্র্যাক ইউনিভার্সিটির ক্যারিয়ার ফেয়ারের টাইটেল স্পন্সর ব্র্যাক ব্যাংক। কো-স্পন্সর হিসেবে রয়েছে থেরাপ বিডি। বেভারেজ পার্টনার পেপসি এবং হাইজিন পার্টনার সেপনিল।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *