রজব মাসে “আইয়ামে বীয”এর সিয়াম

রজব মাসে “আইয়ামে বীয”এর সিয়াম

আগামীকাল শুক্রবার (২৬ জানুয়ারি ২০২৪ খ্রি.) থেকে ১৪৪৫ হিজরীর ৭ম মাস রজব মাসের আইয়্যামে বীয আরম্ভ হতে যাচ্ছে। দিনগুলো হলো শুক্রবার, শনিবার ও রবিবার; যথাক্রমে ২৬, ২৭ এবং ২৮ জানুয়ারি। মুসলিম জীবনে আইয়্যামে বীয-এর সিয়াম পালন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

🔳 “আইয়ামে বীয” কি?

চন্দ্র মাসের ১৩, ১৪ ও ১৫ তারিখকে আইয়ামে বীয বা আইয়ামে বীদ বলা হয়। কারণ এই তিন দিনে চাঁদ পূর্ণতা লাভ করে, সবচাইতে বেশি আলোতিক থাকে। আলোকিত ওই রাতগুলোকে দিনের সাথে সম্পৃক্ত করে ‘আইয়ামে বীয’ নামকরণ করা হয়েছে।

আমাদের প্রিয় নাবী মুহাম্মদ ﷺ আইয়ামে বীযের তিনদিন নিয়মিত সওম পালনে অভ্যস্ত ছিলেন।

আব্দুল্লহ্ ইবনু ‘আমর ইবনুল ‘আস (রাঃ) হতে বর্ণিত। রসূলুল্লহ্ ﷺ বলেছেন, “প্রত্যেক মাসে তিনদিন সওম পালন করা, সারা বছর ধরে সওম পালনের সমান”। (বুখারীঃ ১৯৭৫, ১৯৭৬, মুসলিমঃ ১১৫৯)

আবু যর (রাঃ) হতে বর্ণিত। রসূলুল্লহ্ ﷺ বলেছেন, “প্রত্যেক মাসে তিনদিন সওম (নফল) পালন করতে চাইলে ১৩, ১৪ ও ১৫ তারিখে তা পালন করো”। (তিরমিযীঃ ৭৬১, নাসায়ীঃ ২৪২৪)

🔳 টানা ৫ দিন সিয়ামের পালনে সুযোগ:

যেই ভাই-বোনেরা সোমবার এবং বৃহস্পতিবারের সিয়ামে অভ্যস্ত, আলহামদুলিল্লাহ তাদের জন্য আবারও সুযোগ এসেছে টানা ৫ দিন (২৫, ২৬, ২৭, ২৮ এবং ২৯ জানুয়ারি) সিয়ামের।

🔳 রজব মাস এবং সতর্কতা:

রজব মাস পবিত্র কুরআন এবং হাদিসে বর্ণিত চারটি হারাম (সম্মানিত) মাসের অন্তর্ভুক্ত। পবিত্র কুরআনে এসেছে, ‘নিশ্চয়ই আকাশমণ্ডলী ও পৃথিবী সৃষ্টির দিন থেকেই আল্লহর কাছে গণনায় মাস ১২টি, তার মধ্যে ৪টি (সম্মানিত হওয়ার কারণে) নিষিদ্ধ মাস, এটাই সুপ্রতিষ্ঠিত বিধান। সুতরাং এর মধ্যে তোমরা নিজেদের প্রতি অত্যাচার করো না। আর মুশরিকদের সাথে তোমরা যুদ্ধ কর সমবেতভাবে, যেমন তারাও তোমাদের সাথে যুদ্ধ করে যাচ্ছে সমবেতভাবে। আর মনে রেখো, আল্লহ মুত্তাকীদের সাথে রয়েছেন। [সূরা তওবা, আয়াত ৩৬]

হাদীস শরীফে এসেছে, রসূলুল্লহ্ ﷺ বলেন, ‘আল্লহ তাআলার আসমান-জমিন সৃষ্টি করার দিন থেকেই বারো মাসে বছর হয়। এর মধ্যে চারটি মাস সম্মানিত; তিনটি একাধারে জিলকদ, জিলহজ ও মহররম এবং চতুর্থটি হলো ‘রজব মুদার’, যা জমাদিউল আখিরা ও শাবানের মধ্যবর্তী মাস।’ (মুসলিম)

অতএব, এ মাসের সম্মান এবং পবিত্রতা রক্ষা করা আমাদের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব। মহান আল্লহ আমাদের তৌফিক দান করুন। আমিন।

লেখক: বিজ্ঞ আইনজীবী, বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *