রোবোটিক্স, অটোমেশন ও ম্যাকাট্রনিক্সে দক্ষ জনশক্তি তৈরিতে কাজ করে যাচ্ছে প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটি রোবোটিক্স এবং ম্যাকাট্রনিক্স ক্লাব

রোবোটিক্স, অটোমেশন ও ম্যাকাট্রনিক্সে দক্ষ জনশক্তি তৈরিতে কাজ করে যাচ্ছে প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটি রোবোটিক্স এবং ম্যাকাট্রনিক্স ক্লাব

প্রযুক্তিগত পরিবর্তনশীলতার এই যুগে উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য উদ্ভাবন এবং প্রায়োগিক শিক্ষার বিষয়টি অত্যাবশ্যক হয়ে দাঁড়িয়েছে। সময়ের চাহিদাকে অনুধাবন করে প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটি অফিস অব দ্য স্টুডেন্ট অ্যাফেয়ার্স সম্প্রতি প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটি রোবোটিক্স এবং ম্যাকাট্রনিক্স নামে একটি নতুন ক্লাব উদ্বোধন করেছে। আমাদের প্রাথমিক লক্ষ্য হলো প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটির ছাত্র-ছাত্রীদের এমন একটি প্ল্যাটফর্ম তৈরি করে দেয়া যেখানে ছাত্রছাত্রীরা রোবটিক্স, অটোমেশন এবং ম্যাকাট্রনিক্স নিয়ে কাজ করার সুযোগ পায়। ক্লাবটি পরিচালনার জন্য ছাত্র-ছাত্রীদের সমন্বয়ে একটি এক্সিকিউটিভ বডি রয়েছে। তাছাড়া ইলেকট্রিক্যাল এবং ইলেকট্রনিক্স ডিপার্টমেন্টের শিক্ষক জনাব জাকির হোসেন মডারেটর হিসেবে ক্লাবটির সংগে যুক্ত আছেন। এই ক্লাবের লক্ষ্য হলো ইলেকট্রিক্যাল এবং ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ এবং কম্পিউটার সাইন্স এবং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষার অভিজ্ঞতাকে সমৃদ্ধ করা।

লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য:

প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটি রোবোটিক্স এবং ম্যাকাট্রনিক্স ক্লাবের প্রাথমিক উদ্দেশ্য হলো রোবোটিক্স এবং ম্যাকাট্রনিক্স এ কাজ করতে আগ্রহী ছাত্রছাত্রীদের প্রায়োগিক শিক্ষার ক্ষেত্রকে প্রসারিত করা। বিভিন্ন কার্যক্রম এবং প্রোগ্রামের মধ্য দিয়ে ক্লাবটি নিম্নলিখিত উদ্দেশ্য অর্জন করতে চায় :
১. তাত্ত্বিক জ্ঞানকে যাতে বাস্তবিক ক্ষেত্রে প্রয়োগ করা যায় সেজন্য ছাত্রছাত্রীদের এমন একটি প্লাটফর্ম তৈরি করে দেয়া যাতে ছাত্র-ছাত্রীরা তাদের উদ্ভাবনী চিন্তা ও দক্ষতাকে কাজে লাগাতে পারে।
২. রোবোটিক্স, অটোমেশন এবং মেকাট্রনিক্সের বিভিন্ন ওয়ার্কশপ, সেমিনার, প্রজেক্ট ইত্যাদির মধ্য দিয়ে প্রায়োগিক দক্ষতা বা টেকনিকেল স্কিলের বিকাশ সাধন।
৩. বিভিন্ন ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের ছাত্র-ছাত্রীদের মধ্যে আন্তঃ বিভাগ সমন্বয় তৈরি করা।
৪. রোবটিক্স এবং অটোমেশনের জগতে কাজের সুযোগ তৈরি এবং সেই সুযোগ কাজে লাগানোর জন্য ছাত্র-ছাত্রীদের দক্ষ করে গড়ে তুলে।

পরিচালনা এবং নেতৃত্ব:
ক্লাবটি পরিচালনার জন্য রোবোটিক্স এবং ম্যাকাট্রনিক্স এ কাজ করতে উৎসাহী, উদ্যমী এবং নিবেদিত প্রাণ কিছু ছাত্রছাত্রীর সমন্বয়ে একটি পরিচালনা পরিষদ রয়েছে। তাছাড়াও ইলেকট্রিক্যাল এবং ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের এসিস্ট্যান্ট প্রফেসর জনাব জাকির হোসেন ক্লাবটিতে মডারেটর হিসেবে কাজ করছেন। তাছাড়াও তিনি ক্লাব সদস্যদের মেন্টর হিসেবেও কাজ করছেন।

অধিকন্তু ক্লাবটির সামগ্রিক কার্যক্রম পরিচালনা, মান নিয়ন্ত্রণ ও নীতিমালা তৈরি ইত্যাদি কার্যক্রম পরিচালনার জন্য অফিস অব দা স্টুডেন্ট অ্যাফেয়ার্স এবং ক্যারিয়ার সার্ভিস কাজ করে যাচ্ছে।

ক্লাবটির বিভিন্ন কার্যক্রম এবং প্রোগ্রামসমূহ:
প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটি রোবোটিক্স এবং ম্যাকাট্রনিক্স ক্লাব ছাত্র-ছাত্রীদের তাদের কার্যক্রমসমূহে অংশগ্রহণ নিশ্চিতকরণ এবং তাদের শিক্ষা অভিজ্ঞতা সমৃদ্ধকরণের লক্ষ্যে বিভিন্ন কার্যক্রম হাতে নিয়েছে। এর মধ্য থেকে কিছু গুরুত্বপূর্ণ কার্যক্রম নিচে তুলে ধরা হলো —

১. ওয়ার্কশপ এবং ট্রেনিং সেশন : আরডুইনো প্রোগ্রামিং, সেন্সর ইন্টারফেসিং, রোবটিক্স ডিজাইন এবং কন্ট্রোল সিস্টেম ইত্যাদির মত বিষয়ের উপর ওয়ার্কশপের আয়োজন করা।
২. ছাত্র-ছাত্রীদের বিভিন্ন রোবটিক্স সংক্রান্ত প্রজেক্ট কার্যক্রমে উৎসাহ প্রদানের লক্ষ্যে ইন্ট্রা এবং ইন্টার ইউনিভার্সিটি রোবটিক্স কম্পিটিশনের আয়োজন করা।
৩. রোবোটিক্স এবং ম্যাকাট্রনিক্স এর সাম্প্রতিক উদ্ভাবন সমূহ ছাত্র-ছাত্রীদের সামনে উপস্থাপনের লক্ষ্যে ইন্ডাস্ট্রি থেকে এক্সপার্ট এনে গেস্ট লেকচার এবং সেমিনারের আয়োজন করা।
৪. ইন্ডাস্ট্রি প্র্যাকটিস এবং রোবোটিক্সের বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রায়োগিক দিকগুলো সম্পর্কে অন্তর্দৃষ্টি তৈরির লক্ষ্যে রোবটিক্স এবং অটোমেশনের কোম্পানিগুলোতে ইন্ডাস্ট্রি ভিজিটের ব্যবস্থা করা।
৫. শিক্ষকদের সাথে রোবটিক্স এবং ম্যাকাট্রনিক্সের বিভিন্ন বিষয়ের উপর যৌথ গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনা।

ফলাফল:
রোবোটিক্স এবং ম্যাকাট্রনিক্স ক্লাবের সংযুক্তির কারণে প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটি ছাত্রীদের মধ্যে নিন্মলিখিত ইতিবাচক ফলাফল আশা করা যায়।
১. শিক্ষা অভিজ্ঞতার বিকাশ সাধন : ক্লাসরুমে ছাত্রীরা যে তত্ত্বীয় জ্ঞান আহরণ করে রোবোটিক্স এবং ম্যাকাট্রনিক্স ক্লাবের বিভিন্ন কার্যক্রমের কারণে ছাত্র-ছাত্রীরা সেই জ্ঞানকে বাস্তবিক ক্ষেত্রে প্রয়োগ করার সুযোগ পাবে। ফলশ্রুতিতে রোবোটিক্স এবং ম্যাকাট্রনিক্স বিষয়ে তাদের জ্ঞান ও দক্ষতা অনেক গুণ বৃদ্ধি পাবে।
২. স্কিল ডেভেলপমেন্ট ও দক্ষতা বৃদ্ধি : বিভিন্ন ওয়ার্কশপ সেমিনার এবং প্রজেক্টে অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে ছাত্রছাত্রীরা রোবটিক্স, অটোমেশন এবং সংশ্লিষ্ট ক্ষেত্রে টেকনিকেল দক্ষতা বৃদ্ধির সুযোগ পাবে।
৩. আন্ত বিভাগ সহযোগিতা : যেহেতু রোবোটিক্স এবং ম্যাকাট্রনিক্স একটি ইন্টার ডিসিপ্লিনারি বিষয়, কাজেই বিভিন্ন ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের ছাত্র-ছাত্রীরা এই ক্লাবে কাজ করবে। ফলে অন্যান্য ডিপার্টমেন্টের মধ্যে এক ধরনের আন্তঃ বিভাগ সহযোগিতার ক্ষেত্র তৈরি হবে। একই সাথে তাদের মধ্যে টিমে কাজ করার দক্ষতাও বৃদ্ধি পাবে
৪. ইন্ডাস্ট্রি রেডিনেস: বাস্তবিক বিভিন্ন প্রজেক্টসমূহে অংশগ্রহণ এবং ইন্ডাস্ট্রি এক্সপার্টদের সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা তৈরি হওয়ার ফলে ছাত্র-ছাত্রীরা ভবিষ্যতে ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করার জন্য অধিকতর উপযোগী হয়ে উঠবে। একই সাথে রোবটিক্স এবং অটোমেশন ইন্ডাস্ট্রির সাম্প্রতিক ধারা ও প্রবণতা সমূহ অনুধাবন করতে সক্ষম হবে।

পরিশেষে বলা যায়, প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটি রোবোটিক্স এবং ম্যাকাট্রনিক্স ক্লাব প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটির ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য রোবোটিক্স এবং ম্যাকাট্রনিক্স এর মত ব্যাপক সম্ভাবনাময় ক্ষেত্রে কাজ করার সুযোগ তৈরি করে দিচ্ছে। আগামী দিনে বাংলাদেশের রোবোটিক্স এবং ম্যাকাট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং এর ক্ষেত্রে দক্ষ নেতৃত্ব তৈরিতে প্রেসিডেন্সি ইউনিভার্সিটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আশা করা যায়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *