লিডিং ইউনিভার্সিটির ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের নতুন বিভাগীয় প্রধান ড. জিয়াউর রহমান

লিডিং ইউনিভার্সিটির ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের নতুন বিভাগীয় প্রধান ড. জিয়াউর রহমান

লিডিং ইউনিভার্সিটির ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের নতুন বিভাগীয় প্রধান হিসেবে যোগদান করেছেন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. মো. জিয়াউর রহমান।
এ পদে যোগদান করায় তাকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী, বন্ধুমহল ও শুভানুধ্যায়ী অভিনন্দন জানিয়েছেন। তার যোগ্য নেতৃত্বে বিভাগটি এগিয়ে যাবে সকলে মন্তব্য করেন এবং তার সার্বিক সাফল্য কামনা করেন।

ড. জিয়াউর রহমান ২০০৪ সালে বৃহত্তর ঘাসিটুলা আলিম মাদরাসা সিলেট থেকে দাখিল ও ২০০৬ সালে শাহজালাল জানেয়া ইসলামিয়া কামিল মাদরাসা , সিলেট থেকে আলিম কৃতিত্বের সাথে উত্তীর্ণ হন। তিনি ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আল হাদীস এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগ থেকে ২০১০ সালে প্রথম শ্রেণীতে বিটিআইএস (সম্মান) ও ২০১১ সালে প্রথম শ্রেণীতে এমটিআইএস (মাস্টর্স) ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে “বাংলাদেশে প্রচলিত খতম, দুরূদ ও মানত: আল-কুরআন ও আল-হাদীসের আলোকে এর বিশ্লেষণ ” বিষয়ে এমফিল লিডিং টু পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন ২০২২ সালে। এছাড়াও তিনি ২০০৫ সালে জামেয়া মাহমুদিয়া সোবহানীঘাট, সিলেট থেকে দাওরায়ে হাদীস ও ২০১২ সালে জামেয়া রহমানিয়া তায়িদুল উলুম কামিল মাদরাসা থেকে কামিল ডিগ্রি অর্জন করেন।

২০০৫ সালে দাওরায়ে হাদীস সম্পন্নের পর নিজ এলাকার ঐতিহ্যবাহী জামেয়া মুশাহিদিয়া ক্বাসিমুল উলুম মাদরাসায় শিক্ষক হিসেবে তার কর্মজীবন শুরু। মাদরাসাটিতে এক বছর শিক্ষকতা করেন। পরবর্তীতে ২০১৩ থেকে ২০১৫ সালের ১৮ মার্চ পর্যন্ত সিলেটের হযরত শাহজালাল দারুচ্ছুন্নাহ ইয়াকুবিয়া কামিল মাদরাসার আল হাদীস এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগে প্রভাষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।
এরপর তিনি ২০১৫ সালের ১৯ মার্চ লিডিং ইউনিভার্সিটির ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগে প্রভাষক পদে যোগদান করেন এবং ২০২১ সালের ১ অক্টোবর সহকারী অধ্যাপক পদে উন্নীত হন। এছাড়াও তিনি বিশ্ববিদ্যালয়টির বিভিন্ন অনুষ্ঠানে সাফল্যের সাথে দায়িত্ব পালন করেন।

তিনি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের আমন্ত্রণে সেমিনারে অংশগ্রহণ করেন এবং এর পাশাপাশি বিভিন্ন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক জার্নালে তাঁর ১০টিরও অধিক গবেষণা প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে।

ড. মো. জিয়াউর রহমান ১৯৮৪ সালের কোম্পানিগঞ্জ থানার সিলেট জেলায় এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা মরহুম আশরাফ আলী ও মাতা আলফাতুন নেছা । পারিবারিক জীবনে তিনি মিসেস রোকসানা বেগম এর সাথে বৈবাহিক বন্ধনে আবদ্ধ এবং ৪ সন্তানের জনক।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *