শিশুকে অপহরণের পর ৫০ হাজার টাকায় বিক্রি, গ্রেফতার ৩

শিশুকে অপহরণের পর ৫০ হাজার টাকায় বিক্রি, গ্রেফতার ৩

রাজধানীর হাজারীবাগ এলাকায় দুই বছরের এক শিশুকে অপহরণের ঘটনায় তিনজনকে গ্রেফতার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ। তারা হলেন- সুলতানা আক্তার ওরফে নেহা (২২), সাইফুল ইসলাম (২৭) ও শাহজাহান (৩৪)।

বুধবার কুমিল্লার লালমাই এবং বরুড়া থানা এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

ডিবি জানিয়েছে, সুলতানা আক্তার ওরফে নেহা রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় শিশু বাচ্চা চুরি করার উদ্দেশ্যে ঘুরে বেড়ায় এবং অভিভাবক ছাড়া ছোট বাচ্চা পাওয়ামাত্রই তাদের চিপস্, আইসক্রিম, চকলেট দিয়ে কৌশলে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

বৃহস্পতিবার ডিবির রমনা বিভাগের ডিসি হুমায়ুন কবির তিনজনকে গ্রেফতারের তথ্য নিশ্চিত করে জানান, গত ২১ মার্চ সকালে হাজারীবাগের ঝাউচর এলাকার রিকশাচালক নুরুল ইসলাম বেরিয়ে যান। বিকেলে মেয়ে তাবাসসুমের সঙ্গে শিশু তাওসীন বাসার সামনে খেলা করতে যায়। ওই সময় তার স্ত্রী বাসায় রান্না করছিলেন। খেলা করার সময় তার শাশুড়ি লুৎফুন নাহার পাশে ছিলেন। হঠাৎ ৩২ বছর বয়সী বোরকা পরা এক নারী তার শাশুড়িকে জিজ্ঞাসা করে যে ‘এই দুটা বাচ্চা কার। তিনি বলেন নাতি-নাতনি। তারপর ওই নারী চলে যায় এবং ছেলে ও মেয়েকে খেলা করা অবস্থায় রেখে তার শাশুড়ি বাসায় যায়। এই সুযোগে ওই নারী নুরুলের ছেলে ও মেয়ের হাতে দুটা চিপসের প্যাকেট দেয় এবং ছেলে তাওসীনকে কোলে করে নিয়ে ওই নারী ঝাউচর মূল সড়কের দিকে যায়। পরে মেয়ে তাবাসসুম কেঁদে কেঁদে বাসায় আসে ও তার মাকে বলে তাওসীনকে একজন মহিলা নিয়ে যাচ্ছে। এ কথা শুনে নুরুলের স্ত্রী দ্রুত বাসার সামনে গিয়ে ছেলে ও ওই নারীকে খুঁজতে থাকেন। না পেয়ে পরে এলাকায় মাইকিং করেন। কিন্তু কোনো খোঁজ মেলেনি। এরপর তারা হাজারীবাগ থানায় একটি মামলা করেন।

তিনি আরও বলেন, বোরকা পরা সুলতানা আক্তার ওরফে নেহা (২২) শিশুটিকে শাহজাহান নামে একজনের কাছে ৫০ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেন। তাকে গ্রেফতারের সময় সাড়ে ২৩ হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়েছে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *