শুভ বুদ্ধপূর্ণিমা আজ

শুভ বুদ্ধপূর্ণিমা আজ

বৌদ্ধধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব পবিত্র বুদ্ধপূর্ণিমা আজ বুধবার। ‘জগতের সকল প্রাণী সুখী হোক’ এই অহিংস বাণীর প্রচারক গৌতম বুদ্ধের শুভজন্ম তিথিতে এ উৎসব পালন করে থাকেন বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীরা।

বৌদ্ধ ধর্মমতে, গৌতম বুদ্ধের কাছে জাতি, শ্রেণি ও গোত্রের কোনো ভেদাভেদ ছিল না। তিনি মানুষকে মানুষ এবং প্রাণীকে প্রাণী রূপেই জানতেন।

বৈদিক পঞ্জিকা অনুযায়ী আজ সন্ধ্যা ৬টা ৪৭ মিনিটে শুক্লপক্ষের বৈশাখী পূর্ণিমা তিথি শুরু হবে, শেষ হবে আগামীকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টা ২২ মিনিটে। ফলে উদয়া তিথিতে এই পূর্ণিমা আগামীকাল পালন করবেন অনেকে। এ দিন স্নান-দান করা হবে। তবে যারা চন্দ্র অর্ঘ্য দেন ও ব্রত পালন করেন তারা আজ পূর্ণিমা পালন করবেন।

বৌদ্ধদের বিশ্বাস, এই পুণ্যতিথিতে গৌতম বুদ্ধের আবির্ভাব, বুদ্ধত্ব লাভ ও মহাপরিনির্বাণ ঘটেছিল। যথাযথ ধর্মীয় ভাবগম্ভীর পরিবেশে বৌদ্ধধর্মাবলম্বীরা এ উৎসব পালন করবে। বুদ্ধপূর্ণিমা উপলক্ষে আজ সরকারি ছুটি। রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশে দিনব্যাপী নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। আজ সকালে মঙ্গলপ্রদীপ জ্বালিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা করবে বৌদ্ধরা। দেশের বিভিন্ন বৌদ্ধ মন্দিরে আলোকসজ্জা, ত্রিপিটক থেকে পাঠ, কঠিন চীবর দান, আলোচনাসভাসহ থাকছে নানা আয়োজন। জগতের সব প্রাণীর সুখ-শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে অনুষ্ঠিত হবে বিশেষ প্রার্থনা।

বৌদ্ধধর্মমতে, আজ থেকে আড়াই হাজারেরও বেশি বছর আগে বর্তমান নেপালের অন্তর্গত কপিলাবস্তু রাজ্যের শাক্যবংশীয় রাজা শুদ্ধধনের ঔরসে রানি মায়াদেবীর গর্ভে লুম্বিনী কাননে সিদ্ধার্থ গৌতমের জন্ম হয়। রাজপুত্র সিদ্ধার্থ মানুষের দুঃখে বেদনার্ত হয়ে মুক্তির উপায় খুঁজতে রাজপ্রাসাদ ছেড়ে বেরিয়ে পড়েছিলেন সত্যের সন্ধানে। বিভিন্ন স্থানে পরিভ্রমণের পর অবশেষে তৎকালীন উপমহাদেশের বিহার রাজ্যের গয়ার ফল্গু নদীর তীরে অশ্বত্থগাছের নিচে বজ্রাসনে বসে কঠোর সাধনায় লাভ করেন বুদ্ধত্ব। বুদ্ধত্ব-পরবর্তী দীর্ঘ ৪৫ বছর ধর্ম প্রচার করে কুশিনারা মল্লদের শালবনে পরিনির্বাপিত হন। তার জন্ম, বোধিলাভ ও মহাপ্রয়াণ বৈশাখী পূর্ণিমার দিনে হয়েছিল বলে বৈশাখী পূর্ণিমার অপর নাম দেওয়া হয় ‘বুদ্ধপূর্ণিমা’।

এ উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণীতে বৌদ্ধ সম্প্রদায়কে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। দিবসটি উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ বুদ্ধিস্ট ফেডারেশন রাজধানীর মেরুল বাড্ডায় আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহারে দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করবে। রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন আজ বঙ্গভবনের ক্রেডেনশিয়াল হলে বৌদ্ধধর্মাবলম্বীদের সংবর্ধনা দিবেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *