সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে পদমর্যাদার বৈষম্য নিরসন সময়ের দাবি

সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে পদমর্যাদার বৈষম্য নিরসন সময়ের দাবি

বেসরকারি উচ্চমাধ্যমিক (আলিম মাদ্রাসা ও ইন্টারমিডিয়েট কলেজ) প্রতিষ্ঠানে ও সরকারি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের পদমর্যাদায় বিরাট বৈষম্য বিরাজমান।

ইতিপূর্বে কলেজের প্রভাষকগণ, চাই সেটা সরকারি বা বেসরকারি, কলেজ বা মাদ্রাসা, উচ্চমাধ্যমিক বা ডিগ্রী পর্যায়ে হোক না কেন মোট শিক্ষকের ৫:২ সহকারী অধ্যাপক হিসেবে পদোন্নতি পেতেন।

কিন্তু বর্তমানে বেসরকারি উচ্চমাধ্যমিক (আলিম মাদ্রাসা ও ইন্টারমিডিয়েট কলেজ) প্রতিষ্ঠানে ও সরকারি প্রতিষ্ঠানের প্রভাষকদের পদমর্যাদায় বিরাট বৈষম্য বিরাজমান।

এসব প্রতিষ্ঠানে প্রভাষক এরপর সিনিয়র প্রভাষক নামে পদ সৃষ্টি করা হয় এবং সহকারী অধ্যাপক পদটি বিলুপ্ত করা হয়। অথচ এসব স্তরের সরকারি প্রতিষ্ঠানে
প্রভাষক, সহকারী অধ্যাপক, সহযোগী অধ্যাপক এবং অধ্যাপকের পদ বিরাজমান আছে।

একই দেশে এ বৈষম্য শিক্ষা ক্ষেত্রে এক নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে বলে প্রাজ্ঞজনরা মনে করেন। তাই সিনিয়র প্রভাষক পদটি বিলুপ্ত করে সহকারী অধ্যাপক পদটি চালু করা হোক।

একই সাথে সরকারি কলেজ মাদ্রাসার মতো সহযোগী ও অধ্যাপক পদের বিষয়ে ইতিবাচক পদক্ষেপ গ্রহণের জন্যও কর্তৃপক্ষের সদয় দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

শিক্ষকদের পদোন্নতি শিক্ষা ক্ষেত্রে বিরাট ইতিবাচক ভূমিকা রাখবে বলে প্রাজ্ঞজনদের বিশ্বাস।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *