সুশৃঙ্খলভাবে ইসলাম চর্চায় ঐক্যবদ্ধতার কোন বিকল্প নেই

সুশৃঙ্খলভাবে ইসলাম চর্চায় ঐক্যবদ্ধতার কোন বিকল্প নেই

বর্তমানে বাংলাদেশে ইবলিস ও তার সন্তানরা মোটামুটি রিল্যাক্স মুডে মজা লুটছে। মরা ভাইয়ের মাংস চিবিয়ে খাওয়ার বন্দবস্ত করে ইবলিস এখন পর্দার অন্তরালে। আমরা এখন আকিদাহ শিখছি-রাসূল সা. এর বাবা মা জান্নাতী না জাহান্নামী? ইব্রাহীম আ.এর পিতা জান্নাতী না জাহান্নামী? আল্লাহ এখন আরশের উপর উঠে বসেছেন। আরশের উপর উঠে ভাই উনি কী করছেন? এসব জেনে বুঝে কৃষক, শ্রমিক আম জনতার প্রয়োজনটা কী?

আমরা কী জানি কবরে আমাদের বাবা মার অবস্থাটা কী? মে,ইয়ারে হক্ব আসলে কী আমরা কজন জানি? সাহাবাদের মর্যাদা সম্পর্কে আমাদের জ্ঞান অনেক সীমিত। তাদের থেকে ঘটে যাওয়া ঘটনার বিবরণ দিতেও কুন্ঠাবোধ করিনি। একজন সাহাবী অপরাধ করার পর তওবাহ করেছেন এবং নিষ্পাপ হয়ে দুনিয়ার সফর সমাপ্ত করেছেন। স্বযং আল্লাহ তাআলা সাহাবিদের উপর সন্তুষ্ট। রাসূলুল্লাহ সা. সাহাবাদের যুগের সার্টিফাই করেছেন। তাদের ইজমা ইসলামী শরীআতের দলীল হিসেবে স্বীকৃত।

যেসব জটিল ইখতেলাফী বিষয় সাধারণ জনগোষ্ঠীর বুঝ ক্ষমতার বাইরে সেগুলোকে জনসম্মুখে আলোচনা না করাটাই হিকমাহ। এগুলো নিয়ে আলিমদের মাঝে আন্তসংলাপ চালানো যেতে পারে, সেমিনার, সিম্পোজিয়ামের আয়োজন করা যেতে পারে । এতে মতনৈক্যের জায়গাগুলোতে সঠিক বিষয় বেরিয়ে আসবে এবং পরষ্পরকে মতৈক্যের পথে ধাবিত করবে।

দেওবন্দী, মওদূদীপন্থী, বেরলোভী, নানুতুভী, কাওমী, আলিয়া, পীর-মাশায়িখ, মুশরিক, বেদাতী, মাজারপুজারী, সালাফী মাদখালী, হানাফী, আহলে কুরআন, সহীহ আকিদাহ- প্রত্যেকেই নিজ নিজ দলের উপর সন্তুষ্ট এবং নিজ দলের ভুলত্রুটি নেই কেবলী দোষ অন্যের। একে অপরের ছিদ্রান্বেষণ এদের সবার উপর ফরজ কর্তব্য।

নূরানী মক্তব প্রাইমারীতে চালু করার টিএনওর পরামর্শ আসলে এটির উল্টোপীঠে কী আছে সেটা ভাববার ফুরসত কই। নূরানী মক্তব বন্ধ হলে কওমী মাদ্রাসা শিক্ষার ভবিষ্যত কী? ইবতেদায়ী মাদরাসা শিক্ষাকে জাতীয়করণ সময়ের দাবী। মাদার ইনিস্টিটিউশন না থাকলে উপরের ক্লাসে ছাত্র ছাত্রীর আগমন আপনা আপনি বন্ধ হয়ে যাবে। এসব জনগুরুত্বপূর্ণ বিষয়াদির সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার জন্য সরকারী মহলে দেন দরবার করা ইসলাম প্রিয় জনগোষ্ঠীর ফরজ কর্তব্য এবং তা করতে ঐক্যবদ্ধতার কোন বিকল্প নেই। ভবিষ্যত প্রজন্মকে ইসলাম শূণ্যতা থেকে বাঁচাতে আমাদের কাদা ছোঁড়াছুড়ির পথ পরিহার করতে হবে। আল্লাহ আমাদের সহায় হোন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *