হলুদ সাংবাদিকতা পরিহার করে নিজেদের বিবেক ও দেশের স্বার্থকে প্রধান্য দিবে : উপাচার্য আব্দুছ ছবুর খান

হলুদ সাংবাদিকতা পরিহার করে নিজেদের বিবেক ও দেশের স্বার্থকে প্রধান্য দিবে : উপাচার্য আব্দুছ ছবুর খান

বিদায়ী শিক্ষার্থীদের পেশাগত জীবনে ‘ইয়েলো’ বা হলুদ সাংবাদিকতা পরিহার করে নিজেদের বিবেক ও দেশের স্বার্থকে প্রধান্য দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে (এমআইইউ) ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ আব্দুছ ছবুর খান। বিশ্বিবদ্যালয়ের জার্নালিজম অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের ১১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও বিদায়ী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান। শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি’২৪) সকালে জমকালো আয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয়ের আশুলিয়া ক্যাম্পাসের সেমিনার হলে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও বিদায়ী সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়।

উপাচার্য আব্দুছ ছবুর খান বলেন, ‘মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি শিক্ষার্থীদের গুণগত শিক্ষার পাশাপাশি নৈতিক মূল্যবোধসম্পন্ন শিক্ষায় শিক্ষিত করার জন্য কাজ করছে। সুতরাং আজ যারা এখান থেকে পাস করে বের হয়ে যাচ্ছ, তারা পেশাগত জীবনে ‘ইয়েলো’ বা হলুদ সাংবাদিকতা পরিহার করে নিজেদের বিবেক ও দেশের স্বার্থকে প্রধান্য দিবে বলে আমি আশা করি। জার্নালিজম অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে সংশ্লিষ্ট বিভাগের শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীদের অভিনন্দন জানান ও বিদায়ী শিক্ষার্থীদের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ ও সফলতা কামনা করেন।

জার্নালিজম অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের বিভাগীয় প্রধান মো. মামুন উদ্দীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন স্কুল অব ইঞ্জিনিয়ারিং, সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি অনুষদের ডিন ড. নারগিস সুলতানা চৌধুরী, স্কুল অব আর্টস অ্যান্ড হিউম্যানিটিজের ডিন ড. মোহাম্মদ ওবায়দুল্লাহ এবং এমআইইউ’র রেজিস্ট্রার ড. মো. মোয়াজ্জম হোসেন।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মাঝে বক্তৃতা করেন আইন বিভাগের প্রধান মোহাম্মদ আজহারুল ইসলাম, ইইই বিভাগের প্রধান কে. এম. আকতারুজ্জামান, সেন্টার ফর জেনারেল এডুকেশনের পরিচালক ড. মোহাম্মাদ আবুল কালাম আজাদ, জার্নালিজম অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগের সহকারী অধ্যাপক রফিকুজ্জামান, রেহানা সুলতানা প্রমুখ।

অনুষ্ঠান শেষে বিদায়ী ছাত্র-ছাত্রীদের সংবর্ধনা ক্রেস্ট প্রদান করা হয় ও প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটা হয়। অনুষ্ঠান উপলক্ষে রঙ-বেরঙয়ের ব্যানার, ফেস্টুন ও কারুকাজে সাজানো হয় বিশ্ববিদ্যালয়ের আশুলিয়া ক্যাম্পাস। এ ছাড়া প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও বিদায় অনুষ্ঠান উপলক্ষে নতুন ও পুরাতন ছাত্র-ছাত্রীদের মিলনমেলায় পরিণত হয় জার্নালিজম অ্যান্ড মিডিয়া স্টাডিজ বিভাগ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *