হামলা আসন্ন, নাগরিকদের রাফা ছাড়তে বলল ইসরায়েল

হামলা আসন্ন, নাগরিকদের রাফা ছাড়তে বলল ইসরায়েল

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ অঞ্চল গাজায় দীর্ঘ সাত মাস ধরে হামলা চালাচ্ছে ইসরায়েল। তেল আবিবের একের পর এক হামলায় ইতোমধ্যে ধ্বংসযজ্ঞে পরিণত হয়েছে মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ অঞ্চলটি। দীর্ঘ এই সময়ে গাজার বিভিন্ন অঞ্চল ইসরায়েলি বর্বরতায় আক্রান্ত হলেও কিছুটা রেহাই ছিল রাফা শহরে। তবে সম্প্রতি লাখ লাখ জনগোষ্ঠীর আশ্রয়স্থল এই শহরে হামলা ‘আসন্ন’ বলে ঘোষণা দিয়েছেন ইসরায়েলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইয়োভ গ্যালান্ট।

রবিবার (৫ মে) তুরস্কভিত্তিক বার্তা সংস্থা আনাদোলুর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গাজা উপত্যকার দক্ষিণাঞ্চলীয় রাফাতে পরিকল্পিত স্থল হামলা ‘আসন্ন’ বলে জানিয়েছেন ইসরায়েলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইয়োভ গ্যালান্ট। মধ্য গাজার নেটজারিম করিডোরে ইসরায়েলি সেনা সদস্যদের তিনি একথা বলেন।

তিনি বলেছেন, ‘আমরা উদ্বেগজনক যেসব লক্ষণ লক্ষ্য করছি, তাতে বোঝা যাচ্ছে- হামাস আমাদের সাথে চুক্তিতে পৌঁছাতে চায় না। এর মানে, রাফাতে সেনা অভিযান আসন্ন।’

এদিকে রাফার বেসামরিক নাগরিকদের শহর ছাড়ার আহ্বান জানিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। তারা বলছে— তারা দক্ষিণ গাজার রাফা শহরের জনগণকে সরে যেতে ‘উৎসাহিত’ করছে। নতুন আশ্রয়ণ হিসেবে আইডিএফ নিকটবর্তী খান ইউনূস এবং মাওয়াসিতে যেতে বলা হয়েছে রাফা শহরের বাসিন্দাদের।

আইডিএফ বলছে, এটি ‘সীমিত সুযোগ’। উচ্ছেদ অভিযান নয়। প্রাথমিকভাবে সেখান থেকে অন্তত ১ লাখ ফিলিস্তিনিকে মধ্য গাজায় সরিয়ে নেওয়া হবে। বর্তমানে অঞ্চলটিতে প্রায় ১২ থেকে ১৪ লাখ ফিলিস্তিনি অবস্থান করছে। সূত্র: বিবিসি ও আনাদোলু

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *